মাও. আহমাদুল্লাহ আশরাফ ছিলেন আপোষহীন: ছাত্রশিবির

  

পিএনএস ডেস্ক: মুহাম্মাদুল্লাহ হাফেজ্জী হুজুর (রহ:)’র বড় ছেলে, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের সাবেক আমির, আলেমে দ্বীন, মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ ও মিরপুর আরজাবাদ মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা মোস্তফা আযাদের ইন্তেকালে শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির।

শুক্রবার ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন এই শোক প্রকাশ করেছেন।

যৌথ শোকবার্তায় বলা হয়েছে, “শুক্রবার সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজীউন)। তার ইন্তেকালে জাতি এক উজ্জ্বল নক্ষত্রকে হারালো। জীবনের শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত তিনি দেশে ইসলাম ও ইসলামী আন্দোলনের প্রসার, আলেম সমাজকে ঐক্যবদ্ধ করণ ও ইসলাম বিরোধী সকল কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন।

ইসলাম, স্বাধীনতা ও মানুষের অধিকার রক্ষায় তিনি ছিলেন আপোষহীন। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় তার ভূমিকা ছিলো অত্যান্ত বলিষ্ঠ। দেশ ও জনগণের জন্য তার গৌরব উজ্জ্বল ভূমিকা আলেম সমাজ ও জাতি চিরকাল মনে রাখবে। তার ইন্তেকালে আমরা গভীরভাবে শোকাহত।”

ইসলামী ছাত্রশিবিরের প্রচার সম্পাদক খালেদ মাহমুদ স্বাক্ষরিত এক শোকবার্তায় এইসব তথ্য জানানো হয়।

যৌথ শোকবার্তায় বলা হয়, “অন্যদিকে আজ (শুক্রবার) সকাল ৯টায় ইন্তেকাল করেন মিরপুর আরজাবাদ মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলান মোস্তফা আযাদ। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজীউন)। তিনি একদিকে যেমন হাজারো ছাত্রকে দ্বীনি শিক্ষায় শিক্ষিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছেন। অন্যদিকে দ্বীনের দায়ী হিসেবে ইসলামের পথে আহবানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। নাস্তিক্যবাদীদের বিরুদ্ধে আন্দোলনে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। দেশের এই সংকট কালে তাঁদের মত প্রবীণ আলেমে দ্বীনদের ইন্তেকালে অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে।

আমরা মরহুমের মাগফিরাতের জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করছি এবং তার শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।”

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech