ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে: ফখরুল

  

পিএনএস ডেস্ক : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ভারত সফর শেষে দেশে ফিরে দেয়া আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্য দেশের মানুষের মধ্যে প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। বাংলাদেশের নির্বাচনে ভারত হস্তক্ষেপ করবে না-একথা বলার দায়িত্ব আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদককে কে দিয়েছে এমন প্রশ্ন তুলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তার এ বক্তব্য আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে সমস্যার সৃষ্টি করবে।

আজ বিকালে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবে সম্মিলত বৌদ্ধ নাগরিক কমিটির আয়োজনে এক আলোচনা সভায় তিনি এ প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন, কয়েকদিন আগে আওয়ামী লীগের একটি টিম ভারত গিয়েছিল। কিন্তু ফিরে এসে তারা বললেন- ভারত বলেছে তারা বাংলাদেশের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না। এই কথার অর্থ কি? কেউ কি বলেছে- ভারত বাংলাদেশের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে।

এছাড়া, ওবায়দুল কাদেরকে কি ভারত এই কথাটা বলার দায়িত্ব দিয়েছে যে, ভারতের পক্ষ থেকে উনি বলছেন তারা বাংলাদেশের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না। ভারতের পক্ষে কথা বলার অধিকার তাকে কে দিল? তিনি একথা বলতে পারেন না। এমন কথার প্রেক্ষিতে গোটা বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে অনেক প্রশ্ন তৈরি করেছে। আমরা সব সময় মনে করি ভারত আমাদের সব চেয়ে নিকটতম বন্ধু রাষ্ট্র। কারণ মুক্তিযুদ্ধের সময় তাদের ভূমিকা আমরা শুধু স্বীকার করিনা, শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করি। আমরা সব সময় মনে করি তাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখা বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। তাদের সম্পর্কে কোন ভুল ধারণা তৈরি হোক সেটা আমরা চাই না।

সব সময় প্রত্যাশা করি পৃথিবীর সমস্ত গণতান্ত্রিক দেশগুলো যেন গণতন্ত্রের পক্ষে থাকে। তারা যেন অন্যায়ের বিরুদ্ধে থাকে। যখন কোন রাষ্ট্রে গণতন্ত্রকে দমন পীড়ন করা হয়, গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করা হয় তখন তারা যেন স্বোচ্চার থাকেন, জনগণের পক্ষে থাকেন। মির্জা ফখরুল বলেন, একটি কথা খুব আলোচিত। তা হল- আওয়ামী লীগ আজীবন ক্ষমতায় থাকবে। আমরাও বলি আওয়ামী লীগ আজীবন ক্ষমতায় থাকুক, আমরা খুব খুশি হব। তবে জনগণের ভোটে ক্ষমতায় আসতে হবে। জনগণকে নিয়ে ক্ষমতায় আসুন। সুষ্ঠু নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আপনারা ক্ষমতায় আসেন, আমাদের কারও আপত্তি নেই।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech