নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারে জাতীয় পার্টির সমর্থন নেই: এরশাদ

  


পিএনএস, রংপুর: জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, নির্বাচনে ইভিএমের ব্যবহার নিয়ে আগেও জাতীয় পার্টির সমর্থন ছিল না, এখনো নেই। ইভিএমে কারচুপি হবে কিনা তিনি নিশ্চিত না।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) রংপুর সার্কিট হাউজ প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

এরশাদ বলেন, বিএনপি নির্বাচনে এলে জাপা আওয়ামী লীগ জোটের সঙ্গে থাকবে। দিন পরিবর্তন হয়েছে। মহাজোটের সঙ্গে থাকলে জাপার জয় হবে।

নির্বাচনে আসন ভাগাভাগি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গত নির্বাচন করি নাই, এবার রংপুরের ২২টি আসন ফেরত চাইবো। এই নির্বাচনে ৭০টি আসন চেয়েছি।

নির্বাচনকালীন সরকারে থাকতে কোনো বাঁধা নেই জানিয়ে এরশাদ বলেন, নির্বাচনকালীন সরকারে থাকতে পারি।

এ সময় জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য জি এম কাদের, রংপুর সিটি করপোরেশনের (রসিক) মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসির প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে বুধবার বিকেলে রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় এনেছি আমি, কিন্তু সুবিচার পাইনি। ক্ষমতায় এসে আওয়ামী লীগ আমাকে আবার জেলে পাঠিয়েছে। পাঁচ কোটি টাকা জরিমানা করেছিল। তাই বলছি, আমাদের বন্ধু জনগণ। আমাদের বন্ধু এরা নয়।

এরশাদ বলেন, ‘আমি যখন জেলখানায়, নির্বাচন হলো। বিএনপি পেল ১১৬টি আসন, আমরা পেলাম ৩৩টি, জামায়াতে ইসলামীর ছিল ৩টি আসন। আমি সমর্থন দিলে বিএনপি আবার ক্ষমতায় আসতে পারে। আমার কাছে মধ্যরাতে বার্তা পাঠানো হলো, আপনি আমাদের সমর্থন করেন, যা–ই চাইবেন, তা দেব। আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনবেন না।’

বিএনপির প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘তাদের অনুরোধ আমি রাখিনি। আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় এনেছি আমি, কিন্তু সুবিচার পাইনি। ক্ষমতায় এসে আওয়ামী লীগ আমাকে আবার জেলে পাঠিয়েছে। পাঁচ কোটি টাকা জরিমানা করেছিল। তাই বলছি, আমাদের বন্ধু জনগণ। আমাদের বন্ধু এরা নয়।’

জাপার চেয়ারম্যান দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘আমাদের বন্ধু জনগণ, কৃষক-শ্রমিক ও মজদুর। নব্য ধনীদের কথা ভুলে যাও। যারা কোটি কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে, তাদের কথা ভুলে যাও। যারা ব্যাংক লুট করেছে, মানুষ খুন করেছে, তাদের কথা ভুলে যাও। অনেক ব্যথা বুকে। আমি শৃঙ্খলিত রাজনীতিবিদ। এখনো মুক্ত নই। এখন মনে হয় আগামী নির্বাচনের মাধ্যমে শৃঙ্খল ভেঙে আমি মুক্ত মানুষ হব।’

এরশাদ নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে আরও বলেন, ‘আমি সাহস হারাইনি, ধৈর্য হারাইনি। এখন বিশ্বাস করি, আমাদের সামনে ক্ষমতায় যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।’

এরশাদ বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর প্রচারণায় আমরা সাধারণ মানুষের কাছে যাব, নতুন ভোটারদের আকৃষ্ট করব।’

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech