সাংবাদিকের প্রশ্নে রেগে গেলেন মির্জা ফখরুল

  

পিএনএস ডেস্ক : বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলা সমস্ত মানবজাতিকে আঘাত করেছে। এটি ন্যক্কারজনক ঘটনা। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই আমরা।

শনিবার দুপুরে মানিকগঞ্জের ঘিওর উপজেলায় বিএনপির সাবেক মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

প্রয়াত বিএনপি নেতা খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপির অন্যান্য নেতারা। এরপর খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের কবর জিয়ারত করেন তারা। পরে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন মির্জা ফখরুল।

মির্জা ফখরুল বলেন, দখলদারি সরকারের চক্রান্তে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান মিথ্যা মামলায় নির্বাসিত রয়েছেন। একইভাবে বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মী কারাগারে রয়েছেন। লাখ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। দলের এমন সময়ে আমরা প্রয়াত বিএনপি নেতা খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনকে স্মরণ করছি। সাহসিকতা, দূরদর্শিতা এবং কঠিন সময়ে ঐক্যবদ্ধভাবে নেতৃত্ব দিয়ে বিএনপিকে কিভাবে সংগঠিত করে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হয় সেই শিক্ষা খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের কাছে পাওয়া যায়।

বিএনপির মহাসচিব আরও বলেন, বিএনপিতে খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের অবদান কোনোদিন ভুলবার নয়। আমরা তাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। একই সঙ্গে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়ার নির্দেশে বিএনপি পুনর্গঠনের কাজ চলছে। তার নির্দেশেই বিএনপি পুনর্গঠন হবে।

এশিয়া প্যাসিফিক ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নের (এপিডিইউ) স্থায়ী সদস্য ও ইউনিয়নের ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ায় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গর্ববোধ করে বলেন, বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে সংগঠনটি ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় অর্থ বিষয়ক সম্পাদকসহ কয়েকজন নেতার পদত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে রেগে গিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের কেউ পদত্যাগ করেননি। আপনারা সাংবাদিকরা শুধু বিএনপির দোষ খুঁজে বেড়ান, আওয়ামী লীগের কোনো দোষ খোঁজেন না। আওয়ামী লীগ যে পুরো জাতির সঙ্গে প্রতারণা করলো, সে বিষয়ে দোষ খোঁজেন না আর কিছু লেখেনও না।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন ও খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের বড় ছেলে আকবর হোসেন বাবলু প্রমুখ। তবে অনুষ্ঠানে জেলা বিএনপির সভাপতি এবং সম্পাদক কেউ উপস্থিত ছিলেন না।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech