এবার খালেদা জিয়ার মুক্তিতে বৃহত্তর আন্দোলনে যাচ্ছে বিএনপি!

  

পিএনএস ডেস্ক : একদফা দাবী নিয়ে বৃহত্তর আন্দোলনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপি। তবে এ একদফা আন্দোলন মূলত রমজানের পরে করার প্রস্তুতি দলটির। এরআগে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এবং বিএনপির শরিক দলগুলোর সঙ্গে বসে আন্দোলনের চূড়ান্ত ছক তৈরী করা হবে।

সহসাই যদি বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি না হয় তাহলে বিএনপি এ ইস্যুতেই আন্দোলনে নামবে। তবে বড় কোন কর্মসূচি দিতে চাচ্ছেনা দলটির নীতি-নির্ধারকেরা, কারণ আসন্ন এসএসসি পরীক্ষা এবং রমজান শুরু আর এরপরই ঈদের প্রস্তুতি, এ সবকিছু মিলিয়ে রাজপথের আন্দোলনের জন্য উপযুক্ত সময় এটি নয় বলে মনে করেন বিএনপি নেতারা।

এদিকে বিএনপির জাতীয় কাউন্সিল এবং বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলন করার বিষয়টি নিয়েও ভাবছে দলটির নীতি-নির্ধারকেরা। মাঠের আন্দোলন চাঙ্গা করতে হলে সবার আগে দলকে সুসংগঠিত করার উপর জোর দিয়েছেন লন্ডনে পালাতক দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তারেক রহমান চান সাংগঠনিক কর্মকান্ড থেকে ঝিমিয়ে পড়া দলকে চাঙ্গা করে আন্দোলনের উপযোগী করে তোলা। লন্ডনে থাকা তারেক রহমানের ঘনিষ্ঠজনেরা জানিয়েছেন, তারেক রহমান অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে নিয়মিত কথা বলছেন। তাদের তাগিদ দেয়া হয়েছে সম্মেলন করার জন্য।

সম্মেলনের আগে প্রতিটি জেলায় জেলা কমিটি, বিভাগীয় শহরে মহানগর কমিটি পুনর্গঠন করারও তাগিদ দেন তিনি। বিশেষকরে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এবং যুবদলকে শক্তিশালী করার উপর গুরুত্বারোপ করেন লন্ডনে পলাতক থাকা তারেক রহমান। সূত্র জানায়, পুরো বিষয়টি দেখভালের জন্য মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তার সমন্বয়ে একটি শক্তিশালী কমিটি করারও কথা বলেন তারেক রহমান। এছাড়া বিএনপি সমর্থিত পেশাজীবি সংগঠনগুলোকে আরো শক্তিশালী করারও তাগিদ দেন তারেক রহমান। পেশাজীবি সংগঠনগুলোর সাথে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষার জন্য সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ এবং ড্যাব নেতা ডাঃ জাহিদকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এ বিষয়ের সতত্য স্বীকার করেছেন বিএনপির এক যুগ্ম-মহাসচিব।

ঐ যুগ্ম-মহাসচিব জানান, নেতা ( তারেক রহমান) নির্দেশনা দিয়েছেন সবকিছু গুছিয়ে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে একদফার আন্দোলনে শরীক হবার জন্য। তবে এ আন্দোলনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে যুক্ত করতে নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না এবং ২০ দলীয় জোট নেতা এলডিপির কর্ণেল(অব:) অলি আহমদকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এব্যাপারে টেলিফোনে কর্নেল (অব:) অলির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তারেক সাহেব আমাকে এমন কোন দায়িত্ব দিয়েছেন তা আমি শুনিনি। তবে একক কোন ব্যক্তির দায়িত্ব দেবার বিষয় এটি নয়। আন্দোলনের ছক চূড়ান্ত হবে ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে। সহসাই হয়তোবা ২০ দলীয় জোটের বৈঠক হবে বলে জানান তিনি।

সূত্র: বাংলা ইনসাইডার


পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech