সিলেটের ত্যাগীরা ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটিতে পদবঞ্চিত

  

পিএনএস : সম্মেলনের এক বছর পর সোমবার ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটি নিয়ে আপত্তি তুলেছেন পদবঞ্চিতরা। কমিটি নিয়ে ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে ধমক দিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা।

পদবঞ্চিতরা দাবি করছেন, সংগঠনের গঠনতন্ত্র উপেক্ষা করে ‘বিবাহিত ও অছাত্রদের’ কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে। সিলেট বিভাগের পদবঞ্চিতদের দাবি, তারা সাবেক সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকিরের সাথে থাকায় তাদের পদবঞ্চিত করা হয়েছে।

পদবঞ্চিতদের এর মধ্যে রয়েছে- সিলেট বিভাগ থেকে চিন্ময় রায়, জহির আহমদ খান, এম এ হাসান, জয়নাল আবেদীন, আল-আমিন রহমান, তন্ময় শুভ ,আনিসুল ইসলাম জুয়েল, মাহবুব হাসান বকুল, এস.এম লুৎফুর রহমান সহ প্রমুখ। এদের প্রায় সবারই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পদবী ছিল, তারপরও তারা বঞ্চিত হয়েছেন, এতে ক্ষুব্ধ তারা।

জানা গেছে, গত কমিটিতে সক্রিয় রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন কিন্তু সদ্য ঘোষিত কমিটিতে তাদের স্থান হয়নি, এমন অর্ধশতাধিক নেতা রয়েছেন। তাছাড়া গত প্রায় ছয় সাত বছর ধরে ছাত্রলীগের রাজনীতি করে আসছে, এদের অনেকেই বর্তমান কমিটিতে পদ পাননি। সব মিলিয়ে এ সংখ্যা প্রায় দুইশ’র মতো হতে পারে। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কমিটির যারা সক্রিয় রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন তাদের মধ্যে প্রায় অর্ধশতাধিক নেতা বর্তমান কমিটিতে পদ পাননি।

এদের অনেকেরই অভিযোগ করেন, নতুন কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে যারা এই ১১ মাস রাজনীতি করেছে তারাই কেন্দ্রীয় কমিটিতে পদ পেয়েছে। কিন্তু যারা দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতি করে আসছে তারা পদ পাননি।

তাদের দাবি, যারা নিষ্ক্রিয়, সাবেক চাকরিজীবী, বিবাহিত, অছাত্র, গঠনতন্ত্রের অধিক বয়স্ক, বিভিন্ন মামলার আসামী, মাদকসেবী, মাদক ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন অপকর্মের দায়ে যারা ছাত্রলীগ থেকে আজীবন বহিষ্কার হয়েছিল তাদেরকেই ছাত্রলীগে পদায়ন করা হয়েছে।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন