সত্যকে কোনোদিন মুছে ফেলা যাবে না : রিজভী

  


পিএনএস ডেস্ক: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, দেশ থেকে মহান মুক্তিযুদ্ধের সত্য ইতিহাস মুছে ফেলা হচ্ছে, আর এজন্যই মহান স্বাধীনতার ঘোষক, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবর্তক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তম সম্পর্কে বিচারপতি মানিকের মতো বর্তমান শাসকগোষ্ঠীর দোসররা ধৃষ্টতাপূর্ণ বক্তব্য রাখছেন, বানোয়াট মন্তব্য করছেন।

আজ শনিবার দুপুর ১২টায় নয়া পল্টনস্থ বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি এবং শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান সম্পর্কে বিচারপতি মানিকের কটূক্তির প্রতিবাদে যুবদলের উদ্যোগে একটি বিক্ষোভ মিছিল হয়। বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিক্ষোভ মিছিলটি নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারো কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। এতে নেতৃত্ব দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে রিজভী বলেন, এরা ক্ষমতাসীনদের উচ্ছিষ্ট। অবান্তর, অসত্য ও বিকৃত বক্তব্য প্রদানের জন্য মানিকের মতো বিকারগ্রস্ত লোকদের মাঠে নামিয়েছে সরকার। এদেরকে একদিন উচিৎ শিক্ষা দিবে এদেশের জনগণ। সত্যকে কোনোদিনই মুছে ফেলা যাবে না। বরং আওয়ামী শাসকগোষ্ঠীর বিকৃত ইতিহাসকেই জনগণ আস্তাকুঁড়ে নিক্ষেপ করবে। এধরণের কটূক্তিকারী ঘৃণিত ব্যক্তিদের সম্পর্কে জনগণকে সচেতন থাকার আহবান জানান রিজভী।

তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে কারাবন্দী রেখে শেখ হাসিনা প্রতিহিংসার আগুন নেভাচ্ছেন। বেগম জিয়াকে মুক্তি না দিয়ে বর্তমান অবৈধ নিষ্ঠুর সরকার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ওপর বর্তমান স্বৈরাচারী শাসকগোষ্ঠীর চলমান হয়রানি ও নিষ্ঠুরতার অবসান ঘটাতে জনগণ এখন প্রস্তুতি নিচ্ছে।

রিজভী আরো বলেন, গুম-খুন-ক্রসফায়ার-অপহরণ-ভয় ও শঙ্কার বর্তমান এই দুঃসময় অতিক্রম করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে হবে। ‘গণতন্ত্রের মা’ দেশনেত্রীর মুক্তির জন্য রাজপথেই আমাদেরকে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে।

বিক্ষোভ মিছিলে যুবদল সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন, মহানগর উত্তর যুবদল সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মিল্টন, দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহীনসহ মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech