ছাত্রদলের কাউন্সিল নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসছে বিএনপি

  

পিএনএস ডেস্ক: ছাত্রদলের কাউন্সিল বন্ধে আদলতের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায় অবাক হয়েছেন বিএনপি নেতারা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে করণীয় ঠিক করতে দলের পক্ষ থেকে জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে অনুষ্ঠেয় এ বৈঠকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা ও ছাত্রদলের কাউন্সিল পরিচালনা কমিটির সদস্যরা অংশ নেবেন। দলীয় চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে আমান উল্লাহ আমান নামে ছাত্রদলের সাবেক সহ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে ঢাকার সিনিয়র সহকারী চতুর্থ জজ আদালত কাউন্সিলে স্থগিতাদেশ দেন। পাশাপাশি এ বিষয়ে বিএনপিকে সাতদিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশও দেওয়া হয়।

আদালতের এমন নির্দেশ শোনার পর বিএনপিসহ দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের মধ্যে হতাশার সৃষ্টি হয়। কার ইন্ধনে এ স্থগিতাদেশ চাওয়া হল- সেটাই এখন আলোচনার মূল বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইন্ধনদাতাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা।

জানা গেছে, আবেদনকারী আমানের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা। তিনি বিএনপি মহাসিচব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দশজনকে বিবাদী করেছেন। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত আদেশে বলেন, নোটিশপ্রাপ্তির সাতদিনের মধ্যে বিবাদীগণকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে। এ সময় পর্যন্ত কাউন্সিল স্থগিত রাখার নির্দেশ দেয়া হয়।

ছাত্রদলের কাউন্সিলের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন বলেন, তিনি (মামলার বাদী আমান উল্লাহ আমান) ষড়যন্ত্রের শিকার। তাকে জোর করে এই মামলা করতে বলা হয়েছে। আমরা তার কোনও খোঁজ পাচ্ছি না। যেভাবে রিমান্ডে নিয়ে স্বীকারোক্তি আদায় করা হয়, আমরা মনে করি, আমানকে দিয়ে তাই করানো হয়েছে। এর পেছনে সরাসরি সরকারের হাত রয়েছে। আমরা বিষয়টি আইনিভাবে ও রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করবো।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech