বার অ্যাট ল অর্জন করলো তারেককন্যা জাইমা রহমান

  

পিএনএস ডেস্ক :বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নাতনি জাইমা রহমান যুক্তরাজ্যের লিংকন্স-ইন থেকে বার-অ্যাট-ল অর্জন করেছেন। এর আগে লন্ডনের কুইন ম্যারি ইউনিভার্সিটি থেকে আইনশাস্ত্রে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন তারেক রহমানের মেয়ে জাইমা।

এদিকে, জাইমা রহমানের ব্যারিস্টার হওয়ার খবরে ফেইসবুকে তাকে অভিনন্দন বার্তায় ভাসাচ্ছেন বিএনপির নেতারা।

জানতে চাইলে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, জাইমা রহমান লন্ডনের ইনার টেম্পল থেকে বার-অ্যাট-ল অর্জন করেছেন।

আমি ব্যক্তিগতভাবে তার এই কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্যের জন্য অভিনন্দন জানাচ্ছি এবং আশা রাখছি, তিনি কর্মক্ষেত্রে আরও সাফল্য অর্জন করবেন।

বিএনপির অন্যান্য নেতাকর্মী ছাড়াও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সুপ্রিমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী নিতাই রায় চৌধুরী, বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন, খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস নিজ নিজ ফেসবুকে জাইমাকে অভিনন্দন জানান।

বিএনপির বিশেষ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন লিখেছেন, সময় এগিয়ে যায়। মাশাআল্লাহ, আলহামদুল্লাহ। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার দৌহিত্রী ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের একমাত্র কন্যা জাইমা রহমান আইন শাস্ত্রে নিজেকে যোগ্য করে তুলেছেন। এবং ইতোমধ্যেই বার-অ্যাট-ল অর্জন করেছেন। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তাকে দেশ ও মানুষের কল্যাণে উপযুক্ত সময়ের জন্য কবুল করুন এবং হেফাজতে রাখুন, এই দোয়া করছি।

খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস লিখেছেন, এ হার্টলি কনগ্র্যাচুলেশন্স টু ব্যারিস্টার জাইমা রহমান। কনগ্র্যাচুলেশনস টু হার প্রাউড ফাদার দেশনায়েক তারেক রহমান অ্যান্ড ডা. জোবাইদা রহমান।

দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী জোবাইদা রহমানের বড়বোন শাহিনা খান জামান বিন্দুর উদ্ধৃতি দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান বলেন, জাইমা রহমান দেশবাসীসহ প্রবাসী বাংলাদেশিদের কাছে দোয়া চেয়েছেন, যাতে এই পেশায় থেকে মানুষের সেবায় সফলকাম হতে পারেন।

আইন পেশাকে বেছে নেওয়া জাইমার বাবা তারেক রহমান দেশে দুর্নীতির দুই মামলা ও ২১ অগাস্টের গ্রেনেড হামলার মামলায় কারাদণ্ড নিয়ে বিদেশে রয়েছেন। তার দাদি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ড নিয়ে কারাবন্দি।

খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় তার সঙ্গে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে জাইমাকে দেখা যেত। ২০০৭ সালে জরুরি অবস্থার সময় গ্রেপ্তার তারেক পরের বছর জামিনে মুক্তি নিয়ে স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে লন্ডনে পাড়ি জমান, তারপর থেকে সেখানেই রয়েছেন।

নাতনি বিদেশ যাওয়ার পর ২০০৯ সালে ২৬ অক্টোবর নিজের কার্যালয়ে জাইমার চতুর্দশ জন্মদিনের কেক কেটেছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা।

উল্লেখ্য, ঢাকার বারিধারায় আইএসডি (ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অব ঢাকা) স্কুলে ইংরেজি মাধ্যমে পড়াশোনা করেছেন জাইমা। এর পর ২০০৮ সালের ১১ সেপ্টেম্বর বাবা-মায়ের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে চলে যান তিনি। লন্ডনের ম্যারি মাউন্ট গার্লস স্কুল থেকে ‘ও’ লেভেল পাস করার পর লন্ডনের কুইন ম্যারি ইউনিভার্সিটিতে আইন বিভাগে ভর্তি হন জাইমা।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech