লড়ে হারলো মেয়েরা

  

পিএনএস ডেস্ক:আগের ম্যাচের হারের ধকল কিছুটা হলেও কাটিয়ে ওঠার প্রাণান্তর চেষ্টা চালিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। আজকের দ্বিতীয় ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার মেয়েদের ছুঁড়ে দেয়া ২২৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ১৭ রানে হেরেছে রুমানারা। ৮ উইকেটে ২০৬ রানে শেষ হয়ে যায় ৫০ ওভারের খেলা।

অধিনায়ক রুমানা আহমেদের ৬৮ রান ও শারমিন আক্তারের ৭৪ রানের বিশাল সংগ্রহও জয় এনে দিতে পারেনি প্রমিলা টাইগারদের। বাংলাদেশের ইনিংসের ৪৩.৫ ওভারের সময় শারমিন আক্তারের রান আউটটি না হলে ম্যাচের ভাগ্য অন্য রকমও হতে পারতো।

শারমিন ১২৭ বলে ৭৪ রান করেন। শারমিন আক্তারের উইলো থেকে এসেছে ১০টি চারের মার। রুমানা আহামেদ এর এক ওভার আগেই প্রোটিয়া বোলার কাপ এর বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন। ফেরার আগে ৯৫ বলে ৬৮ রান করেন তিনি। তার উইলো থেকে এসেছে ৫টি চার।

তৃতীয় উইকেটে শারমিন ও অধিনায়ক রুমানা মিলে ১২৭ রানের বড় জুটি বাংলাদেশকে জয়ের স্বপ্ন দেখাচ্ছিল। এই দুজন ব্যাটসম্যান ছাড়া আর কেউই তেমন আশানুরূপ জবাব দিতে পারেননি। এরপরের সর্বোচ্চ রান উইকেট রক্ষক নিগার সুলাতনার ১৪ রান।

দক্ষিণ আফ্রিকার বোলারদের মধ্যে সুন লুস ও মারিজান ক্যাপ সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট নিয়েছেন। এছাড়া আয়োবোঙ্গা খাকা ও অধিনায়ক ডেন ফন নাইকার্ক নিয়েছেন একটি উইকেট।

এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেন প্রোটিয়া অধিনায়ক ডেন ফন নাইকার্ক। রীতিমত বাংলাদেশের বোলারদের উপর চড়াও হন দুই ওপেনার। দুই ওপেনার লি ও স্টেইন মিলে ১১৫ রানের জুটি গড়েন। দুইজনেই পান হাফসেঞ্চুরি। প্রথম ম্যাচে ৮৭ রানের ইনিংস খেলা লিজেল লি শনিবার দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেছেন। এদিন ৫৭ বলে ১৩ চারে ৭০ রানের ইনিংস খেলেছেন প্রোটিয়া এই ওপেনার। আগের ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন তিনি।

তাকে সঙ্গ দিয়েছেন আরেক ওপেনার আদ্রিয়ে স্টেইন। তিনি ৯৮ বলে ৮ চারে খেলেছেন ৬৬ রানের ইনিংস। আদ্রিয়ের এটা ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর।

এই দুই ওপেনারের ১১৫ রানের জুটি ভাঙার পরই বাংলাদেশের মেয়েরা ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেন। শেষ পর্যন্ত ৪৯ ওভারে ২২৩ রান তুলতেই অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। অন্য ব্যাটসম্যানদের মধ্যে অধিনায়ক ডেন ফন ২৭, ইয়োলানি ফোরি ১৬ ও মারিজান ক্যাপ ১৫ রানের ইনিংস খেলেছেন।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech