মাশরাফির তৃপ্তি মোস্তাফিজ-রুবেলের বোলিং

  

পিএনএস ডেস্ক : ডাবলিনের ক্লনটার্ফ ক্রিকেট ক্লাব মাঠে কাল নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশ খুব যে বড় স্কোর পেয়েছে তা নয়। তবে ২৫৭ করেও জেতা নিশ্চয়ই অসম্ভব ছিল না। দুই দলের বোলারদের অভিজ্ঞতার পার্থক্য আর এই মাঠে ২৫০-এর বেশি রান করে জেতার পরিসংখ্যান তো মাশরাফিদের পক্ষেই ছিল। তবুও পারেননি তাঁরা। তবে এই হারেও মাশরাফি বিন মুর্তজাকে তৃপ্তি দিচ্ছে মোস্তাফিজুর রহমান আর রুবেল হোসেনের বোলিং ।

যখনই নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা বড় জুটি গড়ার দিকে এগিয়েছে ব্রেক-থ্রু এনে দিয়েছেন মোস্তাফিজ আর রুবেল। পঞ্চম উইকেটে ব্রুম-নিশামের ৭৫ বলে ৮০ রানের জুটি শেষ পর্যন্ত ম্যাচের পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। এই জুটি যখন ভেঙেছে ততক্ষণে ম্যাচ ফসকে গেছে বাংলাদেশের হাত থেকে। তবে ওয়ানডেতে অনেক দিন পর মোস্তাফিজকে দেখা গেছে চেনা রূপে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজটা খুব একটা ভালো যায়নি মোস্তাফিজের। কাল দেখা গেছে বাঁহাতি পেসারের পুরোনো ধারটা। ৯ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে নিয়েছেন ২ উইকেট। মোস্তাফিজের তুলনায় রান বেশি দিলেও গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ব্রেক-থ্রু এনে দিয়ে রুবেলও আশা জাগিয়েছেন। দুই পেসারের বোলিংয়ে প্রাপ্তি খুঁজে পাচ্ছেন মাশরাফি, ‘আমরা মোটামুটি একটা স্কোর করেছি। ২৬০ (আসলে ২৫৭) করে জেতা সব সময়ই কঠিন। সাকিব ভালো শুরু করলেও আমি পারিনি। তবে মোস্তাফিজ উইকেট নিয়েছে। রুবেলও ভালো বোলিং করেছে।’

এই ম্যাচ পেছনে রেখে মাশরাফির চোখ সামনে। বাংলাদেশ অধিনায়ক ত্রিদেশীয় সিরিজের বাকি দুটি ম্যাচ ভালো করে পা রাখতে চান ইংল্যান্ডে, ‘আমাদের ২০ রানের ঘাটতি ছিল। দ্রুত উইকেট নেওয়াটা খুব দরকার ছিল। এই সব উইকেটে ২৫০-৬০ করে জিততে হলে দ্রুত উইকেট নেওয়া প্রয়োজন। আমাদের সেটাও হয়নি। আমাদের এখনো দুটি ম্যাচ বাকি। ভুলগুলো ঠিক করে নিতে পারব আশা করি।’ আগামীকাল ডাবলিনেই বাংলাদেশ খেলবে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech