আফ্রিদিকে ফিরে পেয়ে....

  

পিএনএস, ক্রীড়া ডেস্ক : আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বলে দিয়েছেন শহিদ খান আফ্রিদি। এখন তার বেশিরভাগ সময় কাটে আফ্রিদি ফাউন্ডেশন নিয়ে। খেলাটা চালিয়ে যাচ্ছেন ঘরোয়া ক্রিকেটে। পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) পেশোয়ার জালমির হয়ে খেলেছেন। খেলতে পারেননি ফাইনাল। তবে তার দল এবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

ন্যাটওয়েস্ট টি২০ ব্ল্যাস্টে খেলবেন আফ্রিদি। দল- হ্যাম্পশায়ার। ২০১৬ সালেও ক্লাবটির হয়ে খেলেছেন ইংল্যান্ডের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি আসরে। নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। ১২ ম্যাচ খেলে পকেটে পুরেছিলেন মাত্র ৯ উইকেট। সবচেয়ে খরুচে বোলিংটা করেছিলেন তিনি। যা তার নামের পাশে সত্যিই বেমানান। তার দলও ভালো করতে পারেনি। দক্ষিণ গ্রুপে তলানির দ্বিতীয় দল হয়ে শেষ করেছিল টুর্নামেন্ট।

এর আগে ২০১১ সালেও এই হ্যাম্পশায়ারের হয়ে খেলেছিলেন আফ্রিদি। সেবার ভালো করেছিলেন তিনি। এবারও তার ওপর আস্থা রাখছে ক্লাবটি। আফ্রিদিকে ফিরে পেয়ে রোমাঞ্চিত হ্যাম্পশায়ারের ক্রিকেট পরিচালক জাইলস হোয়াইট।

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ককে স্বাগত জানিয়ে জাইলস বলেন, ‘আফ্রিদিকে ফিরে পেয়ে আমরা রোমাঞ্চিত। আসন্ন টি-টোয়েন্টি ব্ল্যাস্ট প্রতিযোগিতার জন্য হ্যাম্পশায়ারে তাকে স্বাগত জানাই। এর আগে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের ম্যাচে আমাদের সফলতার গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিলেন আফ্রিদি। আমরা মনে করি, বর্তমান দলের সঙ্গে তিনি ভালোভাবেই মানিয়ে নিতে পারবেন।’

আফ্রিদির পরিচয় একজন অলরাউন্ডার। ব্যাটে-বলে দারুণ পারফর্মার তিনি। মারকুটে ব্যাটসম্যান, আবার ভয়ঙ্কর লেগ-স্পিনারও। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এই পাকিস্তানি। জাতীয় দলের হয়ে ৯৮টি ম্যাচ খেলে নামের পাশে যোগ করেছেন ৯৭ উইকেট। পিএসএলের দ্বিতীয় আসরে করেছেন ৮ ইনিংসে ১৭৭ রান। স্ট্রাইক রেট ১৭৩.৫২!

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech