জাদুকরের জাদুতে জয় পেল বার্সেলোনা

  


পিএনএস ডেস্ক: আর্জেন্টাইন তারকা ফুটবল জাদুকর লিওনেল মেসির পায়ে যে জাদু আছে তা আবারো দেখিয়ে দিলেন। ১০ জনের দলকে নিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিলেন তিনি। তার পায়ের জাদুতে একটি গোল পেলেন নিজে এবং আরেকটি গোল করালেন সতীর্থকে দিয়ে। আর এর ফলে অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে ৩-১ গোলের সহজ জয় পেয়েছে বার্সেলোনা।

বুধবার রাতে কাম্প নউয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে গ্রিক ক্লাব অলিম্পিয়াকোসকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে এরনেস্তো ভালভেরদের দল।

শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল বার্সেলোনা। বিপরীতে অলিম্পিয়াকোস ছিল রক্ষণ সামলাতে ব্যস্ত। গোলের সামনে সফরকারীদের ১০ খেলোয়াড় ছিল পাহাড়ায়। অতি রক্ষণাত্মক হওয়ার কারণেই হয়তো ১৮ মিনিটে খেসারত দিয়ে হয়েছে তাদের। জেরার্দ দেলোফেউয়ের ক্রস আটকাতে গিয়ে নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে দেন দিমিত্রিয়োস নিকোলো। তার আত্মঘাতী গোলেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা।

প্রথমার্ধে উত্তেজনার কমতি ছিল না। শুধু যে আত্মঘাতী হয়েছে, সে জন্য নয়। একের পর আক্রমণে বার্সেলোনা যেভাবে ব্যস্ত রেখেছিল অলিম্পিয়াকোসের রক্ষণভাগকে, তাতে গোল সংখ্যা না বাড়ায় কাতালানদের হতাশ হওয়াটা অস্বাভাবিক নয়।

বিরতিতে যাওয়া আগমুহূর্তে বল একবার জালে জড়িয়েছিলও। স্বাগতিকরা গোল পাওয়া তো দূরে থাক, উল্টো হারাতে হয়েছে জেরার্দ পিকেকে। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে স্প্যানিশ ডিফেন্ডার মাঠ ছাড়েন ৪২ মিনিটে। জেরার্দ দেলোফেউয়ের ক্রস ‘হাত দিয়ে’ জালে জড়িয়েছিলেন পিকে। যা সহকারী রেফারির চোখ এড়ায়নি। আগেই হলুদ কার্ড পাওয়া দ্বিতীয়বার একই শাস্তির সঙ্গে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে।

৬১তম মিনিটে দারুণ ফ্রি-কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করার পাশাপাশি ইউরোপিয়ান ফুটবলে শততম গোলের মাইলফলক স্পর্শ করেন মেসি। তার বাঁকানো শটে গোলরক্ষক ঝাঁপিয়ে বলে হাত লাগালেও ফেরাতে পারেননি।

তারপর ৬৪তম মিনিটে ব্যবধান আরো বাড়িয়ে জয় নিশ্চিত করেন লুকাস দিনিয়ে। ফাঁকায় বল পেয়ে কোনাকুনি শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ফরাসি ডিফেন্ডার দিনিয়ে। পরে শেষ বাঁশি বাজা পর্যন্ত আর গোল না হলে ৩-১ গোলের জয় নিয়েই হাসি মুখে মাঠ ছাড়ে ১০ জনের বার্সেলোনা।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech