‘এই রান তাড়া করা সম্ভব ছিল’

  

পিএনএস ডেস্ক: সিলেটে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বাংলাদেশ কোনো বিভাগে বেশি ব্যর্থ-ব্যাটিং না বোলিংয়ে? খুব সম্ভবত বেশিরভাগ ক্রিকেটপ্রেমীই আগে দুষবেন বোলিংকে। টি-টোয়েন্টিতে প্রতিপক্ষ ২১০ রান বোর্ডে তুলে ফেলার পর সেটা তাড়া করা যে কোনো দলের জন্যই চ্যালেঞ্জ।

তবে বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মানতে নারাজ, ২১১ রান তাড়া করার মতো সামর্থ্য তাদের দলের নেই। বরং শুরুটা ভালো হলে ম্যাচটা জেতা সম্ভব হতো বলেই ধারণা তার। ম্যাচের পর পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে উঠে তিনি বলেন, ‘আমার বিশ্বাস, এ রানটা আমরা তাড়া করতে পারতাম। তবে সেজন্য ভালো একটা শুরু দরকার ছিল। আমরা একের পর এক উইকেট হারাতে থাকি, এতে ছন্দ পাওয়া যায়নি।’

তবে কি দলের বোলারদের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট মাহমুদউল্লাহ? সেটা বলারও উপায় নেই। যতই ব্যাটিং সহায়ক উইকেট হোক, বোলাররা ঠিক জায়গায় বল করলে কমপক্ষে ৩০টা রান কম হতো; মনে করছেন তিনি, ‘আমরা বোলিংও ভালো করিনি। এ উইকেট ব্যাটিং সহায়ক ছিল। ব্যাটিংয়ের সময় শিশির পড়াটাও ভালো ব্যাপার ছিল। স্পিনারদের জন্যও তেমন কিছুই ছিল না। যদি আমরা তাদের ১৮০ রানের আশপাশে আটকাতে পারতাম। তবে রানটা তাড়া করা যেতো।’

সামনে শ্রীলঙ্কার মাটিতেই নিদাহাস ট্রফিতে খেলবে বাংলাদেশ, যেখানে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা ছাড়াও টাইগারদের প্রতিপক্ষ ভারত। এমন গুরুত্বপূর্ণ একটি সিরিজের আগেই নিজেদের ভুল-ত্রুটি শোধরানোর তাগিদ দিলেন মাহমুদউল্লাহ, ‘নিদাহাস ট্রফির আগে আমাদের একসঙ্গে বসতে হবে। বের করতে হবে কীভাবে আমরা ১৮০ রান তাড়া করতে পারি এবং আমাদের বোলাররা কীভাবে রানটা কমের মধ্যে রাখতে পারে।’

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech