জার্মান তরুণীকে মেক্সিকো সমর্থকের চুম্বন!

  

পিএনএস ডেস্ক :বিরতিতে মেক্সিকান ওয়েভে মেতে উঠেছে লুঝনিকি। লোজানোর গোলে তখন জার্মানির বিরুদ্ধে এগিয়ে তারা। গলা ভেজাতে গ্যালারির তলায় নেমে এসেছেন দুই দলের সমর্থকরা। লম্বা লাইন পড়েছে খাবারের স্টলের সামনেও। এমন সময় মেক্সিকোর এক সমর্থক জড়িয়ে ধরলেন জার্মান এক তরুণীকে। তারপর বলা নেই, কওয়া নেই তার গালে তাকে দিলেন প্রেম চুম্বন। ব্যাস, রেগে কাঁই জার্মান তরুণীটি। জোর করে নিজেকে বিপক্ষ সমর্থকের হাত থেকে ছাড়ানোর জন্য চেষ্টা চালাতে বাড়ল বিপত্তি। তার দু’হাত জাপটে ধরে মুহূর্তের মধ্যে আরও ক’টি চুম্বন দিলেন মেক্সিকো অনুরাগীটি।

এবার চিৎকার করে উঠলেন জার্মান সুন্দরীটি। যা শুনে পাশে দাঁড়ানো বেশ কিছু জার্মান সমর্থক এগিয়ে এসে মেক্সিকোর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দিলেন। পরিস্থিতি আরও জটিল হতে পারতো যদি না নিরাপত্তারক্ষীরা এসে দুই পক্ষকে প্রায় ঘাড় ধাক্কা দিয়ে গ্যালারিতে পাঠাতেন।

রাশিয়া-জার্মানি পুরানো দ্বন্দ্বের জন্য মস্কোয় তেমন সমর্থন নেই জোয়াকিম লো’র দলের জন্য। মিউনিখ, হামবুর্গ, ডর্টমুন্ডের মতো শহর থেকে অবশ্য প্রচুর সমর্থক হাজির হয়েছেন এখানে। কিন্তু পথেঘাটে তাদেরও বিবিধ টিপ্পনীর মধ্যে পড়তে হচ্ছে। মেট্রোতে জার্মানির লোকেদের দেখলে টিপ্পনী কাটছেন রুশ তরুণরা। সবমিলিয়ে রাশিয়ায় মোটেই উষ্ণ অভ্যর্থনা পাচ্ছেন না জার্মান সমর্থকরা।

ম্যাচের আগেও লুঝনিকিতে মেক্সিকোর সমর্থকদের মধ্যে আবেগের ঢল ছিল অনেক বেশি। সংঘবদ্ধ হয়ে জাতীয় সঙ্গীত কণ্ঠে নিয়ে তারা দাপিয়ে বেড়াচ্ছিলেন মস্কোর রাজপথ। পক্ষান্তরে জার্মানরা অত্যন্ত শৃঙ্খলাবদ্ধ হয়ে হাজির হয়েছেন স্টেডিয়ামে। তিন রঙের জাতীয় পতাকা হাতে নিয়ে তারা এসেছিলেন মাতৃভূমির জয় দেখতে। বিরতিতে এক গোলে পিছিয়ে পড়ার পর তাই তাদের বেশ হতাশ দেখাল।

এক সমর্থককে বলতে শোনা গেল, লেরয় সানেকে বাদ দিয়ে ঠিক কাজ করেননি জোয়াকিম লো। আমাদের আপফ্রন্ট তো খেলতেই পারছে না। মিডফিল্ডও নড়বড়ে। স্যামি খেদিরাকে দলে রাখলে এমনই হয়।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech