২-০ গোলে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে তৃতীয় বেলজিয়াম - খেলাধূলা - Premier News Syndicate Limited (PNS)

২-০ গোলে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে তৃতীয় বেলজিয়াম

  

পিএনএস ডেস্ক : ম্যাচটা খেলতে নামাটাই যেন হতাশার। বিশ্বকাপের এমন একটি ম্যাচ, যেটা কেউ খেলতে চায় না। তবে দুটি দলকে খেলতেই হয়। সেমিফাইনালে পরাজিত দুই দলকে মুখোমুখি হতে হয় স্থান নির্ধারণী খেলায়। সেন্টপিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হওয়া এই ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ২-০ গোলে হারিয়ে তৃতীয় স্থান অর্জন করলো বেলজিয়াম। চতুর্থ হলো ইংল্যান্ড।

খেলার শুরুতেই ইংল্যান্ডের জালে একবার বল জড়িয়ে দিয়ে এগিয়ে রইল বেলজিয়াম। গোল করেন থমাস মুনিয়ের। খেলার ৮২ মিনিটে দুর্দান্ত এক গোল করে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে নেন ইডেন হ্যাজার্ড। শেষ মুহূর্তে একের পর এক গোলের চেষ্টা করেও বেলজিয়াম আর ব্যবধান বাড়াতে পারেনি।

গুরুত্বহীন হলেও এই ম্যাচে বেলজিয়াম এবং ইংল্যান্ড দু’দলই মাঠে নামিয়েছে শক্তিশালী একাদশ। যে কারণে খেলাটাও শুরু থেকে ছিল উপভোগ্য। যদিও পরিসংখ্যানের হিসেবে ইংল্যান্ডের পায়েই ছিল সবচেয়ে বেশি বলের দখল। ইংল্যান্ডের ছিল ৫৭ ভাগ আর বেলজিয়ামের ছিল ৪৩ ভাগ। কিন্তু ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ এখন পুরোটাই বেলজিয়ামের হাতে।

ম্যাচের চতুর্থ মিনিটেই গোল আদায় করে নেয় বেলজিয়াম। ইংল্যান্ডের ডিফেন্সের ভুলই ছিল মূখ্য। নাসের চাদলির জন্য অনেক বেশি জায়গা ছেড়ে দেয় ইংলিশরা। তার বাড়ানো বল শেষ মুহূর্তে পা লাগিয়ে ইংল্যান্ডের জালে জড়িয়ে দেন থমাস মুনিয়ের।

১১ মিনিটেই গোল শোধ করার সুযোগ পেয়েছিল ইংল্যান্ড। রাহিম স্টার্লিং বাম পায়ের দুর্দান্ত এক শট নিয়েছিলেন। কিন্তু বলটি চলে যায় পোস্টের বাইরে চলে যায়। পরের মিনিটেই গোল বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিলেন বেলজিয়ামের কেভিন ডি ব্রুয়েন। বক্সের মাঝ থেকেই ডান পায়ের দুর্দান্ত এক শট নেন ব্রুয়েন। কিন্তু বলটি বাম পাশ ঘেঁষে চলে যায়।

১৪ মিনিটে ইংল্যান্ডের ড্যানি রোজের কাছ থেকে বল পেয়ে ফ্যাবিয়ান ডেলফের ডান পায়ের দারুণ এক শট বলে যায় বক্সের বাইরে। ১৫ মিনিটে কাইরণ ট্রিপারের কাছ থেকে বল পেয়ে রুবেন লফটাস-চেক দারুণ এক হেড নেন। কিন্তু বক্সের মধ্যে লাফিয়ে উঠে সেই বল ঠেকিয়ে দেন বেলজিয়ামের গোলরক্ষক কুর্তোয়া।

২০ মিনিটে ইংল্যান্ডের হ্যারি ম্যাগুইরে আরও একবার দারুণ হেড করে গোলের সম্ভাবনা তৈরি করেছিলেন। কিন্তু গোলরক্ষকের ক্ষিপ্রতায় এবারও বেঁচে যায় বেলজিয়াম। ২৩ মিনিটে হ্যারি কেইনের ডান পায়ের শট মিস হয়ে যান। দারুণ সুযোগ পেয়েও বলটি জড়াতে পারলেন না জালে। ২৪ মিনিটে আরও একবার গোল মিস করলেন রাহিম স্টার্লিং।

৩৫ মিনিটে ইউরি তিয়েলম্যান্স দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন গোল করার। ডান পায়ের শট মিস করেন তিনি। ৩৫ মিনিটে টবি অ্যালডারউইয়ারল্ড ডান পায়ের শট নেন। কিন্তু বক্স মিস করেন তিনি। ৪৫ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুয়েনের চেষ্টা রুখে দেয় ইংল্যান্ডের ডিফেন্ডাররা। ২ মিনিট পর রোমেলু লুকাকু আরও একটি দারুণ সুযোগ পান। কিন্তু কাজে লাগাতে পারেননি।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech