পুরনো ইনজুরিস্থলেই আবারো ব্যথা, তিন মাস মাঠের বাহিরে তামিম!

  

পিএনএস ডেস্ক :ইনিংসের প্রথম ওভারেই সাজঘরে ফিরে যান লিটন দাস ও সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় ওভারে হাতে ব্যথা পেয়ে মাঠ ছাড়েন তামিম ইকবাল। এরপর দলকে টেনে তোলেন মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ মিথুন। দু’জনে মিলে ১৩১ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। ৪৬.৫ ওভারে মোস্তাফিজুর রহমান রান আউট হন। এটি ছিল বাংলাদেশের নবম উইকেটের পতন।

২২৯ রানে শেষ হতে পারতো বাংলাদেশের ইনিংস। কিন্তু তামিম ইকবালের দুঃসাহসিক সিদ্ধান্তে বাংলাদেশের সংগ্রহ হয় ২৬১। তামিম ইকবাল হাতে ব্যথা পাওয়ার পর তাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। হাসপাতাল থেকে তামিম ইকবালের হাতে ব্যান্ডেজ পরিয়ে দেয়া হয়। খবর ছড়িয়ে পড়ে এই ম্যাচে তামিম ইকবাল আর ব্যাট করতে নামতে পারবেনই না, এবারের এশিয়া কাপও তামিমের শেষ।

কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে শেষ উইকেট জুটিতে মুশফিকুর রহিমকে সঙ্গ দিতে মাঠে নেমে যান তামিম ইকবাল। এক হাত দিয়ে ব্যাট করেন তিনি। তামিমের এমন সাহসিকতা দেখে রীতিমতো বিস্মিত সবাই। ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হন মুশফিক। ২৬২ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১২৪ রানে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। ফলে ১৩৭ রানের বিশাল জয় পায় বাংলাদেশ।

আঙুলের চোট নিয়েই দুবাইয়ের বিমান ধরেছিলেন তামিম ইকবাল। খেলা নিয়ে অনেক শঙ্কা থাকলেও শেষ পর্যন্ত ব্যাট হাতে দেশের জন্য নেমে পড়েন তিনি। কিন্তু ব্যাট হাতে নেমেই পুনরায় চোট পাওয়া দেশ সেরা এই ওপেনারকে আগামী দুই থেকে তিন মাস মাঠের বাহিরে থাকতে হবে ।

এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান আকরাম খান। তিনি জানান, তামিম ইকবালের আঙুলে চিড় ধরা পড়েছে। পুরনো ইনজুরিস্থলেই আবারো ব্যথা পেয়েছেন বাংলাদেশ ওপেনার। তাছাড়া তামিমের পরিবর্তে এই মুহূর্তে নতুন করে স্কোয়াডে কাউকে নেওয়া হবে না।

আগামী ২০ সেপ্টেম্বর গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের মুখোমুখি হবে মাশরাফি বিন ‍মুর্তজার দল।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech