রোববার ক্রিকেটার মোসাদ্দেকের বিরুদ্ধে যৌতুক মামলার তদন্ত শুরু

  

পিএনএস ডেস্ক : টাইগারদের তারকা অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের বিরুদ্ধে অবশেষে স্ত্রী সামিয়া শারমিন উষা’র দায়ের করা যৌতুক মামলার তদন্ত কাজ শুরু করতে যাচ্ছে সদর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা। আগামী রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) থেকে তিনি এই মামলার তদন্ত কাজ শুরু করবেন বলে বুধবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। তদন্ত কাজ শেষে আগামী ৮ নভেম্বরের মধ্যে আদালতে তিনি তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করবেন।

এর আগে গত রোববার (২৬ আগষ্ট) দুপুরে সদর আমলী আদালতের অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট রোজিনা খানের আদালতে ১০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগে স্ত্রী সামিয়া শারমিন উষা মোসাদ্দেকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ না করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে নির্দেশ প্রদান করেন।

তিনি জানান, তদন্তের জন্য আমি প্রথমে সামিয়া, তার পরিবার এবং মোসাদ্দেক এবং তার পরিবারের সঙ্গে স্বশরীরে গিয়ে কথা বলবো। এরপর মোসাদ্দেক ও সামিয়াকে একসঙ্গে আমার অফিসে ডাকবো। খেলার জন্য মোসাদ্দেক দেশের বাইরে থাকায় এই প্রক্রিয়াটি সে দেশে ফিরলে শুরু হবে বলেও জানান তিনি।

তদন্ত কাজ শুরুর বিষয়ে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শারমিন শাহজাদী জানান, গত বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) আমরা আদালতের নির্দেশনার চিঠি পেয়েছি। আমাদের হাতে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত সময় রয়েছে। নানা কারণে আমরা এখনো তদন্ত কাজ শুরু করতে পারিনি। তবে আমরা আগামী রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) থেকে তদন্ত কাজ শুরু করার টার্গেট নিয়েছি।

এদিকে, আলোচিত এই ডিভোর্স প্রসঙ্গে মোসাদ্দেকের স্ত্রী সামিয়া শারমিন ওই সময় গণমাধ্যমকে বলেন, মোসাদ্দেক তারকা ক্রিকেটার হওয়ার পর থেকে নিজেকে বদলে ফেলে। সে প্রায় সময়েই আমাকে নির্যাতন করতো শারীরিক ও মানসিকভাবে। সে কোথাও আমাকে নিজের স্ত্রী হিসেবে পরিচয় দিতো না।

তবে মোসাদ্দেক ওই সময় দাবি করেন, সামিয়া তার মায়ের সঙ্গে এক বাড়িতে থাকতে আপত্তি তুলে এবং প্রায় সময়েই তার মায়ের গায়ে হাত তুলে। ফলে আর টিকতে না পেরে তিনি এই ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নেন। আর ডিভোর্স দেওয়ার পর পরই সামিয়া তার বিরুদ্ধে আদালতে যৌতুকের কাল্পনিক অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech