১১ বলে টি-২০ ম্যাচ জিতলো নেপাল!

  

পিএনএস ডেস্ক: ক্রিকেটের দেশ এশিয়া। বিশ্বকাপে এশিয়া মহাদেশের প্রতিনিধিত্বই থাকে বেশি। কিন্তু ক্রিকেট এখনও এশিয়ার নাম মাত্র ক'টা দেশের মধ্যে সীমাবদ্ধ। অন্য দেশগুলো এখনও যোজন যোজন পিছিয়ে। তিন দিনের ব্যবধানে তার দুটো প্রমাণ মিললো।

গত ৯ অক্টোবর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের এশিয়া অঞ্চলের বাছাইপর্বে অদ্ভুত এক স্কোরকার্ডের জন্ম দেয় মিয়ানমার। প্রথমে ব্যাট করে মাত্র ৯ রান তুলতে পারে তারা। এরপর চীন অলআউট হয় ২৬ রানে। নেপাল ম্যাচ জিতলো ১১ বল খরচায়। আগের ম্যাচে মালয়েশিয়া জয় তুলে নিয়েছিল ১০ বলে। প্রথম ম্যাচে মিয়ানমার ১০.১ ওভারে ৮ উইকেটে তুলেছিল ওই রান। বৃষ্টি আইনে তাদের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৬ রান। সেই রান তুলতে আবার তাদের ২ উইকেট পড়ে যায়।

নেপাল অবশ্য ক্রিকেটের উঠতি দল। সম্প্রতি ওয়ানডে মর্যাদা পেয়েছে তারা। চীনের জন্য তাই নেপাল ছিল কঠিন এক প্রতিপক্ষ। কিন্তু ২৬ রানে অলআউট করে দেওয়ার মতো কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন আছে। টসে জিতে নেপাল প্রথমে বোলিং বেছে নেয়।

চীনের পক্ষে সর্বোচ্চ রান ওপেনার হং জিয়ান ইয়ানের করা ১১ রান। তিনিই দুই অঙ্কে পৌঁছানো একমাত্র চীনা ব্যাটসম্যান। চীন অবশ্য ভালোই শুরু করেছিল। ৬ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ২১ রান তুলে ফেলা তারা। ওই ২১ রানেই তারা হারায় ৫ উইকেট। এরপর আর একজন ব্যাটসম্যান ৫ রান করলে চীনের সংগ্রহ ২৬ রানে দাঁড়ায়। বাকি ব্যাটসম্যানরা আর কোন রান তুলতে পারেনি।

আইপিএল খেলা নেপালের তারকা লেগ স্পিনার সন্দ্বীপ লামিচানে ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৪ রানে ৩ উইকেট নেন। জবাবে ব্যাটে নামা নেপাল ১১ বলেই লক্ষ্যে পৌছে যায়। ওপেনার বিনোদ ভান্ডারি একাই ৮ বলে তোলেন ২৪ রান।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech