মিরাজের অধিনায়কত্বে খুশি মাশরাফি

  

পিএনএস ডেস্ক : মিরাজের কাছে হেরে গেলেন মাশরাফি! বেশ জবর একটা শিরোনাম পেয়ে যাওয়ার খুশিতে ভাসতেই পারেন সাংবাদিকেরা। তবে মাশরাফি বিন মুর্তজা শুধু একটি শিরোনাম, একটি ম্যাচের মধ্যে মিরাজের অধিনায়কত্বকে আটকে রাখতে চাইলেন না। মিরাজকে যে ছোট থেকেই তৈরি করা হয়েছে ভবিষ্যতে জাতীয় দলের হাল ধরার জন্য, মনে করিয়ে দিলেন সে কথাও।

পরাজিত অধিনায়ক হিসেবে সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফিই আগে গেলেন। রংপুর রাইডার্স অধিনায়ক মিরাজের অধিনায়কত্ব নিয়ে বললেন, ‘অবশ্যই ওর জন্য অনেক ভালো। ও এখান থেকে যতটুকু শিখবে আন্তর্জাতিক ম্যাচে সেটা কাজে দেবে। শুধু আন্তর্জাতিক ম্যাচে অধিনায়কত্বের জন্য না, এখান থেকে যেন সে নেতৃত্বটা নিতে পারে। এটা যত তাড়াতাড়ি নিতে পারে তত ভালো। ওর জন্য অবশ্যই এটা অনেক ভালো যে এসব ম্যাচে অধিনায়কত্ব করছে।’

মিরাজ বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন অনেক দিন। তাঁর নেতৃত্বে দুটি যুব বিশ্বকাপ খেলেছে বাংলাদেশ। তবে ছোটদের খোলস ছেড়ে মিরাজ জাতীয় দলে এসেছেন বেশ কিছুদিন হয়ে গেল। এর মধ্যে কোনো দলেরই নেতৃত্ব পাননি। ঘরোয়া ক্রিকেটেও নয়। এবারের বিপিএলে রাজশাহী কিংস অধিনায়ক হিসেবে ফিরিয়ে এনেছে মিরাজকে।

আজ প্রথম রংপুরের বিপক্ষে খেলল রাজশাহী। বড় ভাইয়ের বিপক্ষে টস করতে নামতে হলো ছোট ভাইকে! মিরাজ বেশ প্রত্যয়ের সঙ্গে জানালেন, ‘কখনো ভয় লাগেনি। দিন শেষে এটা একটা খেলাই। যারা ভালো খেলবে তারা জিতবে। অবশ্যই রংপুর ভালো দল। অনেক অভিজ্ঞ মাশরাফি ভাই। অনেকবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন বিপিএল ও অন্যান্য টুর্নামেন্ট। যারা আমরা জুনিয়র আছি, বিশ্বাস ছিল যে ফিরে আসতে পারব। জিততে পারব। এই আত্মবিশ্বাস দিয়েই আমরা জিতেছি। রান কিন্তু বেশি হয়নি আমাদের। ১৩৬ লক্ষ্য ছিল। আমাদের বিশ্বাস ছিল যে আমরা জিততে পারব, ঘুরে দাঁড়াতে পারব। এ কারণেই জিতেছি।’

মাশরাফি যে বললেন তাঁর অধিনায়কত্ব দেশের জন্য ভালো, এটাকে কীভাবে নিচ্ছেন মিরাজ? বললেন, ‘প্রতিদিনই এখানে একটু একটু করে উন্নতি করছি। অনেক দিন পর, প্রায় তিন বছর অধিনায়কত্ব করছি, সেই অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট খেলার পর। কিন্তু হয়তো তিন বছর বিরতি ছিল বলে বিপিএলের শুরুতে একটু সমস্যা হয়েছে। আস্তে আস্তে আমার মাথা খুলছে (অধিনায়কত্বের)। সিদ্ধান্ত আরও ভালো হচ্ছে। সবার সঙ্গে আলোচনা করছি। আরও যত ম্যাচ খেলব, আমার মাথা আরও খুলতে থাকবে।’

রংপুর বিপিএলের চ্যাম্পিয়ন, মাশরাফির মতো অধিনায়ক ওদের দলের। যে মাশরাফি বিপিএলে পাঁচবারের চারবারই চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন অধিনায়কের ভূমিকায়। তাঁকে এমন শেষ ওভারের ম্যাচে হারিয়ে দেওয়াও মিরাজকে নিশ্চয়ই বাড়তি প্রেরণা দেবে। মিরাজ বলছেন, ‘ভালো লাগারই কথা। মাশরাফি ভাই আমাদের বড় ভাই। রংপুর চ্যাম্পিয়ন টিম। ওদের হারাতে পেরে দলের সবার ভালো লাগছে। অন্যরকম অনুভূতি কাজ করছে। আর ভালো দলকে হারাতে পারলে সেটা অন্য রকম আনন্দ দেয়। আমাদের দলে সবাই তরুণ। তরুণেরা ভালো করতে পারলে জেতা সহজ হয়ে যায়। বড় ভাইদের সঙ্গে খেললাম, ভালোই লাগল। খেলা শেষে দেখেন মাশরাফি ভাইরা হেরে গিয়েও আমাদের বেশ অভিনন্দন জানাল। খেলায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকলেও খেলা শেষে আমরা-আমরাই। সবার সঙ্গে দেখা হয়, কথা হয়।'

পিএসএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech