অল্পেই গুটিয়ে গেল আফগানিস্তান

  



পিএনএস ডেস্ক: বৃষ্টির আগপর্যন্তও সঠিক পথেই ছিল আফগানিস্তানের ইনিংস। টপঅর্ডাররা খেলছিল দেখেশুনে। কিন্তু বৃষ্টিতে ঘণ্টাখানেক খেলা বন্ধ থাকার পরই ভোজবাজির মতো বদলে গেল দৃশ্যপট।

ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে অল্পেই গুটিয়ে যায় আফগানিস্তান। কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে মাত্র ১২৫ রানে অলআউট হয়েছে আফগানরা। টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম জয় পেতে বৃষ্টি আইনে ১২৭ রান করতে হবে দক্ষিণ আফ্রিকাকে।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার হযরতউল্লাহ জাজাই ও নুর আলি জাদরান ইতিবাচক ব্যাটিংয়ে গড়েন ৩৯ রানের জুটি। ইনিংসের ৯ম ওভারের প্রথম বলে কাগিসো রাবাদার শিকারে পরিণত হন বাঁহাতি ওপেনার জাজাই। ২৩ বলে ২২ রান করেন তিনি।

এরপর খানিক মন্থর হয়ে যায় আফগানদের ইনিংস। বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি তিন নম্বরে নামা রহমত শাহ্। ইনিংসের ১৬তম ওভারে আউট হওয়ার আগে ২২ বল খেলে করেন ৬ রান।

২০ ওভার শেষে আফগানদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২ উইকেটে ৬৯ রান। তখনই নামে বৃষ্টি। বেশ কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ থাকে। পুনরায় খেলা শুরু হলে ইনিংসপ্রতি ৪৮ ওভার করে নির্ধারণ করা হয়।

কিন্তু সে ৪৮ ওভারই বা খেলার সুযোগ পায় কই আফগানরা। তারা অলআউট হয় মাত্র ৩৪.১ ওভারেই। অবশ্য এর পুরো কৃতিত্ব লেগস্পিনার ইমরান তাহিরের। যিনি একাই নেন ৪টি উইকেট।

বৃষ্টির পর ২ উইকেটে ৬৯ রান নিয়ে খেলা শুরু করে চোখের পলকে মাত্র ১ রান করতেই ৪ উইকেট হারায় আফগানরা। এর মধ্যে ৩টিই নেন তাহির। দলীয় ৭৭ রানের মাথায় সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক গুলবদিন নায়েব।
তখন মনে হচ্ছিলো হয়তো একশর নিচেই অলআউট হয়ে যাবে আফগানরা। সেখান থেকে মাত্র ২৫ বলে ৩৫ রানের ইনিংস খেলে দলকে একশ রানের কোটা পার করান রশিদ খান। তিনি ১২৫ রানের মাথায় নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার পর আর কোনো রান করতে পারেনি আফগানিস্তান।

প্রতিপক্ষকে এত অল্পে বেঁধে রাখতে ২৯ রান খরচায় ৪ উইকেট নেন তাহির। এছাড়া মাত্র ১৩ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট শিকার করেন ক্রিস মরিস।

পিএনএস/ হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech