কাতারকে কাঁপিয়ে হারল বাংলাদেশ

  

পিএনএস ডেস্ক : প্রথমার্ধেই পিছিয়ে পড়েছিল বাংলাদেশ। তবে হাল ছাড়েনি এক মুহূর্তের জন্যও। এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন কাতারের বিপক্ষে লড়ে গেল শেয়ানে শেয়ানে। বলতে গেলে দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে রাজত্ব করল জেমি ডের দলই। কিন্তু অসংখ্য গোলের সুযোগ হাতছাড়া করায় হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হলো বাংলাদেশকে। শেষ দিকে উল্টো ব্যবধান বাড়িয়েছে অতিথি দল।

বৃহস্পতিবার বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইয়ে কাতারের বিপক্ষে ০-২ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দুই দলের ম্যাচটি শুরু হয়েছিল সন্ধ্যা ৭টায়। কাতারের পক্ষে গোল করেছেন আব্দুরইসহাঘ ইউসুফ ও করিম বৌদিয়াফ।

এই হারের ফলে ‘ই’ গ্রুপে টানা দুই ম্যাচে হারল বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ০-১ গোলে হেরেছিল জামাল ভূঁইয়ারা। অন্য দিকে কাতারের এটি দ্বিতীয় জয়। আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে জয় পেলেও ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচে ড্র করে ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজকরা।

প্রথমার্ধে বাংলাদেশ তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলেছে প্রতিআক্রমণ নির্ভর। নিজেদের রক্ষণ ঠিক রেখে ওঠেছে আক্রমণে। তাতে বেশ কিছু সুযোগও তৈরি হয়। প্রথমার্ধের শেষ দিকে তো গোল পায়নি বলতে গেলে ভাগ্যের জন্য। তবে ২৮ মিনিটে গোল হজম করায় পিছিয়ে থেকে মাঠ ছাড়তে হয় স্বাগতিকদের।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের রঙ গেল বদলে। বিশেষ করে ৭০ মিনিটে ফরোয়ার্ড নাবিব নেওয়াজ জীবনকে তুলে নিয়ে মাহবুবুর রহমান সুফিলকে নামাতেই ধার বাড়ে বাংলাদেশের আক্রমণেই। ম্যাচের ৭০ থেকে ৮০ মিনিট, বলতে গেলে কাতার পারেনি খানিক সময়ের জন্যও ওপরে ওঠতে। কিন্তু বড় দলের বিপক্ষে একটি-দুটি সুযোগ হাতছাড়া করলেই আফসোসে পুড়তে হয়। বাংলাদেশ সেখানে সুযোগ হারাল হিসেব ছাড়া। ফরোয়ার্ড লাইনে ইব্রাহিম, সাদ এমনকি মিডফিল্ডার বিপলুও কাজে লাগাতে ব্যর্থ হলেন সুযোগগুলো। ম্যাচসেরা জামাল ভূঁইয়া দাপুটে পারফরম্যান্স দেখালেও তিনিও সুযোগ হাতছাড়া করার তালিকায়।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech