বাবর-আবিদের সেঞ্চুরিতে ড্র পাকিস্তানের

  

পিএনএস ডেস্ক: দশ বছর পর পাকিস্তানের মাটিতে ফিরলো টেস্ট ক্রিকেট। কিন্তু ফেরাটা খুব বেশি সুখকর হলো না। কারণ, টেস্টের পুরো তিনদিনই চলে গেলো বৃষ্টির পেটে। যার ফলে ম্যাচের ফল হওয়ার সম্ভাবনা ছিল না। শেষ পর্যন্ত পঞ্চম দিনে স্বাগতিক পাকিস্তান ব্যাট করতে নেমে উপহার দিল জোড়া সেঞ্চুরি। এটাই তাদের সবচেয়ে বড় স্বান্তনা। এবং এই জোড়া সেঞ্চুরির পর শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়লো পাকিস্তান।

বৃষ্টিতে ম্যাচের প্রায় তিন দিনের খেলা নষ্ট হওয়ায় ফলাফল নির্ধারণ সম্ভব ছিল না। তবে ড্র ম্যাচে পাকিস্তানের বাড়তি পাওনা আবিদের দুরন্ত ব্যাটিং।

রাওয়ালপিন্ডিতে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলঙ্কা। প্রথম দিনের ৬৮.১ ওভারে ৫ উইকেটের বিনিময় ২০২ রান তোলে সিংহলিজরা। দ্বিতীয় দিনে খেলা হয় মাত্র ১৮.২ ওভার। শ্রীলঙ্কা আরও ১টি উইকেট হারিয়ে ৬১ রান যোগ করে দ্বিতীয় দিনে।

অর্থাৎ দ্বিতীয় দিনের শেষে প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কার স্কোর ছিল ৬ উইকেটে ২৬৩ রান। তৃতীয় দিনে খেলা হয় মোটে ৫.২ ওভার। শ্রীলঙ্কা তৃতীয় দিনের শেষে ৬ উইকেটে ২৮২ রানে দাঁড়িয়েছিল। চতুর্থ দিনের খেলা পরিত্যক্ত হয়। পঞ্চম দিনে শ্রীলঙ্কা তাদের প্রথম ইনিংস ডিক্লেয়ার করে ৬ উইকেটে ৩০৮ রান তুলে। এরপর ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান।


শ্রীলংকার হয়ে প্রথম ইনিংসে ১০২ রানে অপরাজিত থাকেন ধনঞ্জয়া ডি’ সিলভা। অধিনায়ক করুনারত্নে করেন ৫৯ রান। শাহিন শাহ আফ্রিদি ও নবাগত নাসিম শাহ ২টি করে উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ আব্বাস ও অভিষিক্ত উসমান সিনওয়ারি।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তান তাদের প্রথম ইনিংসে ২ উইকেটের হারিয়ে করে ২৫২ রান। এরপরই ম্যাচ ড্র ঘোষিত হয়। আবিদ আলি ছাড়াও শতরান করেন বাবর আজম।

আবিদ ২০১ বলে ১০৯ রান করে অপরাজিত থাকেন। বাবর আজমও অপরাজিত থাকেন ১২৮ বলে ১০২ রান করে। অভিষেকেই ম্যাচের সেরা হন আবিদ। ১টি করে উইকেট নেন কাসুন রাজিথা এবং লাহিরু কুমারা।

পিএনএস/মো. শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন