বিশ্বজয়ী দলকে স্পেশাল ট্রেনিং দিয়ে দেশ-বিদেশে প্রচুর খেলানো হবে

  

পিএনএস ডেস্ক: আগে থেকেই জানা, যুব দলের এই বহরকে ধরে রাখতেই অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে আগামী দুই বছর একটি সিস্টেমে রাখার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তাদের পরবর্তী ২৪ মাস এক লাখ টাকা মাসোহারাসহ সার্বক্ষণিক নজরদারি ও অনুশীলনে রাখার ব্যবস্থা করা হবে।

পাশাপাশি বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, এই দলকে আগামীতে পূর্ণাঙ্গ ও পরিপূর্ণ অনুশীলন প্রক্রিয়ায় রাখার পাশাপাশি তাদের পারফরমেন্স ধরে রাখতে দেশে ও বিদেশে প্রচুর ম্যাচ খেলানোর চিন্তাও করা হচ্ছে।

পাপন বলেন, এই ক্রিকেটাররা আগামী দুই বছর যাতে নিজেদের আরও ভালোভাবে গড়ে তুলতে পারে, তাদের অনুশীলন এবং নিজেদের গড়ে তোলায় সম্ভাব্য সবকিছুই করা হবে। তাদের জন্য সর্বোচ্চ পরিমাণ অর্থ নিয়োগ করা হবে। আমরা কোনো পরিমাণ নির্দিষ্ট করিনি। যত টাকা লাগবে তত টাকা বরাদ্দ করা হবে। অনূর্ধ্ব-২১ দলের জন্য আমাদের জন্য ফান্ড আনলিমিটেড।

তিনি বলেন, তাদের যত রকম সাহায্য সহযোগিতা দরকার, তা করা হবে। এর ফাঁকে ফাঁকে তাদের খেলার ভেতরে রাখার প্রাণপণ চেষ্টা করা হবে। তাদের দেশে ও বিদেশে খেলার ব্যবস্থা করা হবে। এছাড়া এখন দেশে ফেরার পর তারা যাতে যে যার মতো নির্বিঘ্নে নিজ নিজ বাড়ি যেতে পারে সে ব্যবস্থাও করা হয়েছে। প্রতিটি ক্রিকেটারকে বাড়ি যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বীরের বেশে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। যুব বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কৃতিত্ব দেখানো দলকে বিমানবন্দরে ফুলেল সংবর্ধনায় সিক্ত করা হয়।

বুধবার বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটের দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায় বাংলাদেশের যুবারা। সঙ্গে ছিলেন কোচিং স্টাফরাও। সেখান আগে থেকেই অপেক্ষায় ছিলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল ও বিসিবির কর্মকর্তারা।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech