ছেলেকে ব্যাট দিয়ে পেটানোর গল্প বললেন তাসকিনের বাবা

  

পিএনএস ডেস্ক: গতকাল রাতে দলের দুই তরুণ তারকা সৌম্য সরকার আর তাসকিন আহমেদের ক্রিকেটসামগ্রী নিলামে ওঠে। নিলামের সময়টুকু জমিয়ে রেখেছিলেন সৌম্যর স্ত্রী প্রিয়ন্তি এবং তাসকিনের বাবা আব্দুর রশিদ। নানা রকম আলাপচারিতা, গল্প, গানে মুখর ছিল তাদের সেই অনলাইন আলাপচারিতা।

বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গনে তাসকিনের 'বাবা নেওটা' হিসেবে পরিচিতি আছে। একসময় তো বাবাকে সঙ্গে নিয়েই মাঠে অনুশীলন করতেন তাসকিন। ডানহাতি এ গতিতারকা সবসময়ই নিজের ক্যারিয়ারের পেছনে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান বাবা ও নিজের পরিবারকে। তবে ক্রিকেট জীবনের শুরুটা এত সহজ ছিল না। ক্রিকেট খেলার জন্য উৎসাহ তো দূরের কথা, উল্টো বাবার হাতে পিটুনি খেতে হয়েছিল তাসকিনকে!

ছেলেকে ব্যাট দিয়ে পেটানোর সেই গল্প নিজেই শুনিয়েছেন তাসকিনের বাবা আব্দুর রশিদ, 'ছোটবেলায় একবার তাসকিনকে নিয়ে গিয়েছিলাম আগারগাওয়ে, বাণিজ্য মেলায়। অন্য বাচ্চারা মেলায় গেলে গাড়ি বা অন্যকিছু কিনতে চাইত। কিন্তু ওর চাওয়াই ছিল ব্যাট-বল। আমি কিনেও দিয়েছি। কিন্তু বাসায় আসার পর হল কি, ও এসব নিয়েই মাঠে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১৬ ঘন্টা কাটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করত।'

তিনি আরও বলেন, 'একদিন আমার ব্যবসায়িক কাজ সেরে বাসায় ফেরার পথে দেখি রোদের মধ্যে ও খেলছে। তো আমি আমার বাইকটা বাসার নিচে রেখেই মাঠের দিকে গেলাম প্রচন্ড রাগ নিয়ে। ও আমাকে দেখেই বুঝেছে বাবা রেগে আছে। তাকে ধরে আমি ঐ ব্যাট দিয়েই পেটাতে পেটাতে বাসায় আনি। আর ব্যাটটা তখনই ভেঙে ফেলি।'

এরপর ক্রিকেটের প্রতি ছেলের আগ্রহ দেখে আব্দুর রশিদের মন গলে যায়। বাংলাদেশের ক্রিকেট পায় নবীন এক গতি তারকাকে।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন