শ্রীলঙ্কা বোর্ডের শর্ত মেনে সফরে যাওয়া সম্ভব নয়: পাপন

  

পিএনএস ডেস্ক: করোনাভাইরাসের কারণে গত মার্চ মাস থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা খেলার বাইরে। দীর্ঘ বিরতি দিয়ে আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে শ্রীলঙ্কার মাটিতে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তিনটি ম্যাচ খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু শেষমেশ সেই সিরিজটি হয়তো হচ্ছে না। আজ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের দেয়া শর্ত মেনে সেখানে সিরিজ খেলতে যাওয়া সম্ভব না।

কথা ছিল, আসন্ন শ্রীলঙ্কা সিরিজে বাংলাদেশ জাতীয় দলের সঙ্গে বিসিবি'র হাইপারফরম্যান্স ইউনিটও (এইচপি) সফর করবে। এর প্রধান কারণ দুটি, প্রথমত বিসিবি'র এইচপি ইউনিট ও লঙ্কান এইচপি ইউনিটের মধ্যকার সিরিজ মাঠে গড়ানোর কথা রয়েছে। আর দ্বিতীয়ত করোনার কারণে যেহেতু স্বাগতিকরা প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য কোনো দল দিতে পারছে না তাই বিসিবি হাইপারফরম্যান্স দলের বিপক্ষেই মুমিনুলদের সিরিজের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল।

কিন্তু হুট করেই আয়োজক দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য নীতিমালার খড়গে অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে হাই পারফরম্যান্স দলের সিরিজটি। কেননা তারা বিসিবিকে পাঠানো স্বাস্থ্য নীতিমালায় স্পষ্টত উল্লেখ করে দিয়েছে করোনা অতিমারির সময়ে এত সংখ্যক ক্রিকেটার যেন দেশটি সফর না করে।

বিসিবি সভাপতি বলেছেন, ‘সেখানে আমাদের দুইটি টিম (জাতীয় দল ও এইচপি দল) নিয়ে যেতে হবে। মেডিকেল টিম আছে, সিকিউরিটি টিম আছে। ৬০-৭০ জনের একটা টিম নিয়ে তো সেখানে তাদের শর্ত মেনে সিরিজ খেলতে যাওয়া সম্ভব না।’

মূলত বাংলাদেশ এবং শ্রীলঙ্কার জাতীয় দলের মধ্যকার সিরিজটি সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ এবং আইসিসি'র বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অধীনের সিরিজ। তাই সবার আগে গুরুত্ব পাচ্ছে জাতীয় দলের সিরিজটিই। আর অন্যদিকে এইচপি দলের সিরিজটি জাতীয় দলের মতো কোনো চ্যাম্পিয়নশিপের অধীনে না হওয়ায় পরবর্তী সময়ে আবারও এই সিরিজ আয়োজন করা সম্ভব হবে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন