স্বর্ণ আবিষ্কারের রহস্য ভেদ করলেন বিজ্ঞানীরা!

  

পিএনএস ডেস্ক: মহাজাগতিক বিশ্বে প্রতিনিয়ত যা ঘটে চলেছে তা সত্যিই চমকে দেওয়ার মতই। অতীতের ওপরই যে বর্তমান নির্ভর করে এমনই এক বাস্তব প্রমাণ মিলল এই মহাবিশ্বে।

প্রায় ১৩ কোটি বছর আগে দুটো মৃত তারার মধ্যে সংঘর্ষ হয়। সেই সংঘর্ষে মহাকাশে তৈরি হয় এমন এক রশ্মির যা ভারী ধাতুকে সোনা বানিয়ে দিতে সক্ষম।

শুনতে আশ্চর্য লাগলেও এমনই তথ্যের সত্যতা রয়েছে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন। মাধ্যাকর্ষণ শক্তির প্রভাবে এটা সম্ভব বলেই তাদের মতামত। সেক্ষেত্রে বিখ্যাত বিজ্ঞানী আইজ্যাক নিউটনের মাধ্যাকর্ষণ শক্তির পরীক্ষিত সত্য তথ্য ফের প্রমাণ করে দিল, অতীতের ওপর বর্তমান আজও নির্ভরশীল। গবেষকরা বলছেন, বিজ্ঞানী আইজ্যাক নিউটনের মাধ্যাকর্ষণ শক্তির তথ্যই এই রশ্মির চিহ্নিতকরণ করতে সাহায্য করেছে।

ক্যালিফোর্নিয়া ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজির বিজ্ঞানের অধ্যাপক ডেভিড রিৎজি বলেন, "‌মহাবিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ আতশবাজি দেখা বলা যেতে পারে এই অবস্থাকে। ‌ ১৯১৬ সালে বিজ্ঞানী আইনস্টাইন এই ধরনের মাধ্যাকর্ষণ শক্তির তরঙ্গের কথা বলেছিলেন। যা আজ বাস্তব হয়ে উঠছে।

মহাজাগতিক বিশ্বে এই সংঘাতের ফলে সৃষ্ট রশ্মির জন্য বেশকিছু রাসায়নিক পরিবর্তন হয়ে ভারী ধাতু সোনা, রূপা, প্ল্যাটিনাম এবং ইউরেনিয়াম তৈরি করবে। "


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech