‘সরকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ইন্টারনেটের আওতায় আনতে কাজ করছে’

  

পিএনএস ডেস্ক : ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বলেছেন, সরকার দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ইন্টারনেটের আওতায় আনার লক্ষ্যে কাজ করছে।

শনিবার (১৬ মার্চ) নেত্রকোনায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মদিন উপলক্ষে শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারের হল রুমে শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জাতির পিতার সুযোগ্যা কন্যা আমাদের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পৃথিবীতে প্রথম মানুষ যিনি বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণা করেছেন। ইতিমধ্যে দেশ ডিজিটাল যুগে প্রবেশ করেছে। দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটেলাইজড করার প্রক্রিয়াও চলছে। জাতির পিতার হাতে দেশটা স্বাধীন হয়েছে, আর সারাবিশ্বে তা অনুসরণ করার মতো দেশটা তৈরি করেছেন তারই কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর মত মহান ব্যক্তির জন্ম হয়েছে বলেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের মধ্যে একটি প্রভাবশালী রাষ্ট্র উন্নতশীল রাষ্ট্র হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছে। প্রধানমন্ত্রীর এবারের ঘোষণা ছিল, ‘আমার গ্রাম আমার শহর’। সেই লক্ষে আমরা কাজ করছি। পর্যায়ক্রমে প্রত্যন্ত গ্রামগুলো ইন্টারনেট সেবার আওতায় আসবে। সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে গ্রাম গঞ্জের শিক্ষার ধরনও পাল্টাবে এবং ডিজিটালের আওতায় আসবে।

মন্ত্রী তিনি শেখ হাসিনা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমাদের সবাইকে কম্পিউটারে প্রশিক্ষিত হতে হবে। এজন্য তোমাদের ফ্রি-ইনটারনেটের সুযোগ দেয়া হবে।

নেত্রকোনায় শেখ কামাল আইসিটি পার্ক নির্মানের কাজ চলছে। এখানে যুবক যুবতীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক রফিকউল্লাহ খানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- নেত্রকোনার সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য হাবিবা রহমান খান শেফালী, স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত লে. কর্নেল (অবঃ) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার আবদুল মতিন, রেডক্রিসেন্ট সোইটির সম্পাদক গাজী মোজাম্মেল হোসেন টুকু প্রমুখ।


পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল




 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech