ক্ষুদ্রতম চাঁদের দেখা মিলবে আজ

  

পিএনএস ডেস্ক : সর্বশেষ ২০০৬ সালের জানুয়ারিতে দেখা গিয়েছিল ক্ষুদ্রতম চাঁদ। সে সময় মুগ্ধ হয়েছিলো বিশ্ববাসী। সেই অতিকায় চাঁদকে এবার দেখা যাবে একবারে খুদে অবয়বে। নাম ‘মাইক্রো মুন’। শুক্রবার সাধারণ আকারের তুলনায় ১৪ থেকে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছোট এ চাঁদটি দেখা যাবে।

বিজ্ঞানীদের মতে মাইক্রো মুনের ক্ষেত্রে চাঁদ ১৪ থেকে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছোট দেখায়। উপবৃত্তাকার কক্ষপথের জন্য চাঁদ কখনও পৃথিবীর সামনে আসে, কখনও দূরে চলে যায়। সেই মতো শুক্রবার ১৩ সেপ্টেম্বর চাঁদ পৃথিবী থেকে দূরতম স্থানে অবস্থান করবে। পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব দু’লক্ষ ৫১ হাজার ৬৫৫ মাইল হলেই মাইক্রো ধরা হয়। কিন্তু এবার তার থেকেও ৮১৬ মাইল দূরে থাকবে চাঁদ। আর সুপার মুনের ক্ষেত্রে পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব হয় ২০৩৯ মাইল বা তার থেকে কম।

কলকাতায় পজিশনাল অ্যাস্ট্রনমি সেন্টারের ডিরেক্টর সঞ্জীব সেন জানিয়েছেন, এবার পূর্ণিমা শুরু হবে শুক্রবার সকালে। আর পূর্ণিমা ছাড়বে আগামীকাল ১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টা ৩ মিনিটে। ফলে এই সময়ের মধ্যে চাঁদকে সব থেকে ছোট দেখাবে। ১৩ বছর পর চাঁদকে এতটা ছোট রূপে দেখতে চাইলে শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই আকাশের দিকে নজর রাখতে হবে।

তবে বাংলাদেশ থেকে ‘মাইক্রো মুন’ বা ক্ষুদ্রতম চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে মেঘলা আকাশ। কারণ আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে আগামীকাল শুক্রবারও আকাশ মেঘলা থাকতে পারে। আগামী ৭২ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা কমে আসবে। আর আকাশ যদি মেঘলা থাকে তবে ক্ষুদ্রতম চাঁদ দেখার সুযোগ হারানোর সম্ভাবনা আছে। বিজ্ঞান জানিয়েছে ১৩ বছরের কম বা বেশি সময় পরে এ চাঁদের দেখা মেলে। সে ক্ষেত্রে ২০৩৩ সালের মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কারণ পরের ক্ষুদ্রতম চাঁদ দেখা যাবে ওই সময়।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech