স্ত্রীর লাশ রেখে স্বামীর পালায়ন

  

পিএনএস, ফরিদপুর : ফরিদপুরের ভাঙ্গায় স্ত্রী রাশেদা বেগমের (২৬) লাশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রেখে পালিয়ে গেছে স্বামী আজিজুল মাতুব্বর (৩৫)। মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) দুপুরে ভাঙ্গা থানা পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

সোমবার (১৭ অক্টোবর) রাতে ঘটনার পর থেকে রাশেদার স্বামী ও তার বাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে।

রাশেদার বাড়ি ভাঙ্গা পৌরসভার কৈডুবি সদরদী। প্রায় ১০ বছর আগে আজিজুলের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

রাশেদা বেগমের ভাই মজিবর রহমান জানান, বেশ কিছুদিন যাবৎ তার ভগ্নিপতি আজিজুল পরকীয়ায় আসক্ত হয়। এ কারণে স্বামী আজিজুল রাশেদাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছিল। এ নিয়ে পারিবারিকভাবে একাধিকবার সালিশ হয়েছে। আজিজুল রাশেদাকে পিটিয়ে হত্যা করে লাশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফেলে রেখে যায় বলে তিনি অভিযোগ করেন।

ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ বলেন, রাশেদা বেগমকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তার শরীরে বিষক্রিয়ার আলামত পাওয়া গেছে। যারা লাশ হাসপাতালে নিয়ে এসেছিল তারা মৃত্যুর খবর শুনে লাশ ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

ভাঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ জানান, হাসপাতালের প্রতিবেদন অনুযায়ী রাশেদা বিষ পান করেছে। তবে সুরতহাল প্রতিবেদনে রাশেদার মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রাশেদার পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech