চারনেতা নিখোঁজ ঘটনার ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও খোঁজ মেলেনি

  

পিএনএস, গাইবান্ধা : গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার দামোদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মনোয়ারুল ইসলাম জীম মন্ডলসহ চার নেতার খোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনার পর ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও তাদের কোন খোঁজ মেলেনি। তাদের খোঁজ পেতে সব খানেই যাচ্ছেন পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু কেহই আশ্বস্ত করার মতো কিছুই বলতে পাচ্ছেনা।

এ ঘটনায় নিখোঁজ সাবেক চেয়ারম্যান জীম মন্ডলের বাবা গোলাম মোস্তফা ডিপটি বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি সাধারন ডায়েরী (জিডি) করেছেন। এ সময় তিনি নিখোঁজদের খুঁজে পেতে আইনশৃংখলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানান।
নিখোঁজ অপর তিনজন হলেন- নলডাঙ্গা ইউনিয়ন আ’লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাইদুল ইসলাম প্রিন্স (৩৫), দামোদরপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাদেকুল ইসলাম সাদেক (৩৬) ও নলডাঙ্গা ইউনিয়ন যুবদলের সহ-সাধারন সম্পাদক শফিউল ইসলাম শাপলা (৩২)।

গোলাম মোস্তফা ডিপটি বলেন, সোমবার রাত সাড়ে ১০টায় জিম সাদুল্যাপুর উপজেলা শহরের কৃষি ব্যাংক মোড় থেকে তার ছেলে মটরসাইকেলে চড়ে নলডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান তরিকুল ইসলাম নয়নের বাড়িতে যাওয়ার জন্য রওনা হয়। পথে লালবাজার এলাকা থেকে তিনি ছাত্রলীগ নেতা সাদেকুল ইসলাম সাদেককে তার মটর সাইকেলে তুলে নেয়। এরপর ৫ দিন পেরিয়ে গেলেও তারা আর বাড়িতে আসেনি। তাদের সন্ধানে আত্মীয়-স্বজনের বাড়ি বাড়ি যাওয়া হলেও কেহই কিছু বলতে পারছেনা। ওই পরিবারের দাবি, সাদা পোশাকধারী আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের ধরে নিয়ে গেছে।

নিখোঁজ মাইদুল ইসলাম প্রিন্সের ভাই নলডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম নয়ন জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সাদা পোশাকে আইনশৃংখলা বাহিনীর পরিচয়ে কয়েক ব্যক্তি নলডাঙ্গা রেলগেট এলাকা থেকে তার মটর সাইকেলসহ প্রিন্সকে তুলে নিয়ে যায়।এখন পর্যন্ত তার কোন অনুসন্ধান পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে র্যাব, পুলিশ, ডিবি পুলিশের সাথে কথা হলে তারাও তার সম্পর্কে কোন তথ্য দিতে পারেনি।

এছাড়া নিখোঁজ শফিউল ইসলাম শাপলার বাবা আমিনুল ইসলাম জানান, একই দিন সকাল ১১টার দিকে নলডাঙ্গা কাচারী বাজার এলাকায় তার ছেলে অবস্থান করছিল। এসময় হঠাৎ করে কয়েকজন তাকে আইডি কার্ড দেখিয়ে একটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যর পরিচয় দেন। পরে তাকে তুলে নিয়ে যায় তারা।

এ ব্যাপারে সাদুল্যাপুর উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহারিয়া খাঁন বিপ¬ব জানান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দিয়ে তাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনাটি দুঃখজনক। তাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে পুলিশ সুপারসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অন্যান্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। তারা সব জায়গায় খোঁজ খবর অব্যাহত রেখেছেন বলে জানিয়েছেন।
সাদুল্যাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরহাদ ইমরুল কায়েস জানান, দামোদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান জীম মন্ডল নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় তার বাবা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী (জিডি) করেছেন। এ ছাড়াও অনুরুপ ঘটনায় আরো ২ টি অভিযোগ পাওয়া গেছে। সব অভিযোগ আমরা খতিয়ে দেখছি। ইতোমধ্যে তাদের উদ্ধারে ছবিসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে জরুরী বার্তা পাঠানো হয়েছে।

গাইবান্ধা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) মো. রবিউল ইসলাম বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহীনির পরিচয় দিয়ে তাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি তিনি জেনেছেন। এব্যাপারে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, পুলিশের কেউ তাদেরকে তুলে নিয়ে যায়নি। বিষয়টি গুরুত্বসহকারে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech