পিরোজপুরে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে ১০ বছরের শিশু গ্রেপ্তার

  

পিএনএস, পিরোজপুর : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার সাড়ে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে মামলার পর ১০ বছরের এক শিশুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

১০ বছরের শিশু ধর্ষণ করতে পারে কি না-এ প্রশ্নের মধ্যেই শিশুটিকে নিয়ে যায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। শিশুটির কাছ থেকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী নেয়ার চেষ্টাও করছে পুলিশ।

স্থানীয় থানার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে শিশুটির বিরুদ্ধে মামলা হয়। মামলাটির সত্যতা তদন্তের আগেই সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ধরে নিয়ে আসে শিশুটিকে। এতে বাহিনীটির অতি তৎপরতাও বলছেন স্থানীয়রা।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, মঠবাড়িয়া উপজেলার সাপলেজা ইউনিয়নের একটি গ্রামের ১০ বছরের শিশুটি একই এলাকার সাড়ে চার বছরের এক শিশুকে বিস্কুট খাওয়ানোর কথা বলে নদীর তীরে নিয়ে যায়। এসময় ওই শিশুকে একটি ঝোঁপের মধ্যে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

সাড়ে চার বছরের শিশুটির মা জানান, তার সন্তান বাড়িতে ফিরে ঘটনাটি তাকে জানায়। এরপর শুক্রবার বিকেলে তিনি মা বাদী হয়ে মঠবাড়ীয়া থানায় নারী শিশু নির্যাতন আইনে ১০ বছরের শিশুটির বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরপর পুলিশ শিশুটিকে ধরে নিয়ে আসে।

এদিকে গ্রেপ্তার শিশুটির স্বজনদের দাবি, মামলাটি সত্য নয়। তাদের পরিবারের অসম্মান করতেই এমন মামলা করা হয়েছে।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম তরিকুল ইসলাম বলেন, শিশুটিতে তারা হাজতে রেখেছেন। শনিবার তাকে আদালতে তোলা হবে এবং ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীর চেষ্টা করা হচ্ছে।

ওসি বলেন, ‘১০ বছরের একটা শিশুর সঙ্গে যেভাবে আচরণ করা দরকার, সেভাবেই করছি আমরা। সমাজসেবা অধিদপ্তরের একজন কর্মকর্তার মাধ্যমে তাকে আদালতে পাঠানো হবে। আদালত তার বয়স বিবেচনা করবে।

১০ বছরের শিশুর পক্ষে ধর্ষণ করা সম্ভব কি না- জানতে চাইলে পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ঘটনাটি শিশু নির্যাতনের মধ্যে পড়ে এবং সে হিসেবে মামলাটি নেয়া হয়েছে এবং এটা সত্য কি মিথ্যা সেটা আদালত বুঝবে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech