বরিশালে বেহাল সড়কের সংস্কার নেই

  

পিএনএস, বরিশাল: বরিশালের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ভরে উঠেছে খানাখন্দে। আর তাতে ভোগান্তিতে পড়ছে যানবাহন চালক থেকে শুরু করে পথচারীরা। প্রায়ই খানাখন্দে দূর্ঘটনা সহ বিকল হয়ে পড়ছে ছোট ও ভারী যানবাহন। ৫৫ বর্গ কিলোমিটারের বরিশাল নগরীর এক হাজার ৩০০ কিলোমিটার সড়কের মধ্যে অনেক সড়কের সংস্কার হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে ভারী বৃষ্টি। সব মিলিয়ে নাজেহাল অবস্থা প্রধান প্রধান সড়কগুলো।

বরিশালের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ রূপাতলী সড়কটির বেহাল অবস্থার কারণে ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে বরিশাল বিভাগের প্রায় সব জেলার যাত্রীদের। বিসিসি কর্তৃপক্ষ বলছে, অর্থাভাব এবং বর্ষার কারণে এসব সড়ক মেরামত করা যাচ্ছে না। তবে দ্রুত এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়া হবে বলে জানান তারা। নগরীর সাগরদী ব্রিজ থেকে শুরু করে রূপাতলী বাস টার্মিনাল পর্যন্ত সড়কটি দক্ষিণের পাঁচ জেলার সঙ্গে বরিশাল তথা গোটা দেশের সড়ক যোগাযোগের একমাত্র অবলম্বন। এই সড়ক থেকে প্রতিদিন কোটি কোটি টাকার মালামাল নিয়ে যানবাহন যাচ্ছে রাজধানী সহ আনেক জেলায়। রাস্তা খানাখন্দ থাকার কারনে এখানে প্রতিদিনই যানবাহন পড়ছে রাস্তার খাদে। কিন্তু মাত্র আধা কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে রাস্তাটি প্রায় সারা বছরই থাকে খানাখন্দে ভরা।

একই অবস্থা বরিশাল আবহাওয়া অফিসের সামনের সড়কটির। সড়কটির মাত্র এক কিলোমিটার গত চার বছরেও সংস্কার না হওয়ায় দুর্ভোগ এখন চরমে। এর সঙ্গে বর্ষার কারণে কাদাপানি এবং বিভিন্ন দপ্তরের খোঁড়াখুঁড়িতে অন্যান্য সড়কেরও বেহাল দশা। বৃষ্টি মানেই যেন বাড়তি ভোগান্তি আকাশ বেয়ে নেমে আসে নগরবাসীর জন্য। বছরের পর বছর সড়ক সংস্কার না করায় বিভিন্ন সময় আন্দোলনও করেছেন স্থানীয়রা। কিন্তু কোনো ফল হয়নি। দ্রুত সড়কগুলোর সংস্কারের দাবি জানান স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা এবং স্থানীয় বাসিন্দারা।

আবহাওয়া অফিস এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা শরিফুল ইসলাম বলেন, রাস্তা সংস্কারের জন্য বিভিন্ন সময় আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে সড়ক সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দেয়া হলেও তা রক্ষা করেনি কর্তৃপক্ষ। সাগরদী ব্রীজ এলাকার ব্যবসায়ী আব্দুল বাতেন হাওলাদার জানান, দীর্ঘদিন ধরেই রূপাতলীর এ সড়কের সংস্কার হচ্ছে না।

ভোগান্তি দূর করতে সিটি কর্পোরেশনকে একাধিকবার অবহিত করা হলেও কোনো সুরাহা মেলেনি। রাস্তার বেহাল অবস্থার কারণে মাঝেমধ্যে দুর্ঘটনা এমনকি কিছু বাহন বিকলও হয়ে পড়ে। কবির নামের একজন ট্রাকচালক বলেন, এ খানাখন্দের কারণে দুর্ঘটনার পাশাপাশি প্রায়ই গাড়ির যন্ত্রাংশ নষ্ট হয়ে যায়।

এ বিষয়ে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আহসান হাবিব কামাল বলেন, টেন্ডার আহ্বান করা হলেও অর্থাভাব এবং বর্ষার কারণে সড়ক মেরামতের কাজ করা যাচ্ছে না। এ কারণে হতাশা প্রকাশ করেন তিনি।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech