লক্ষ্মীপুরে এক কিশোরী ৫ মাসের অবৈধ কিশোরী

  



পিএনএস, লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দত্তপাড়া ইউনিয়নের রমারখিল গ্রামে এক কিশোরী কে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দৈহিক মেলামেশার ঘটনায় ৫ মাসের অবৈধ গর্ভবর্তী হওয়ার ঘটনায় সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবীতে ভিকটিমের স্বজনরা। আজ রোববার সকালে শহরের উত্তর তেমুহনী একটি দৈনিক পত্রিকা কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, দত্তপাড়া ইউনিয়নের রমারখিল গ্রামের মো: নুরুল হুদা তিনি বলেন, পারিবারিক একটি সমস্যা থাকার কারনে সম্প্রতি তিনি ও তার স্ত্রী কুমিল্লা থাকার সুবাধে তার কিশোরী মেয়েকে রমারখিল গ্রামের বাড়িতে রেখে যায়।

এ সুযোগে একই এলাকার মো: রফিকের বখাটে পুত্র রনি হোসেন (শুকুর) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার কিশোরী মেয়ে শাহানাজ আক্তার (১৮)কে একাধিকবার ধর্ষণ করে। দীর্ঘ দিন থেকে ধর্ষণ করার ফলে আমার মেয়ে বর্তমানে ৫ মাসের গর্ভবতী।

পরে বিষয়টি নিয়ে নিয়ে স্থানীয় ইউপি মেম্বার শাহাদাত হোসেন ভুট্টুর কে অবহিত করলে তিনি রনি হোসেন কে আটক করে তার বাড়ি নিয়ে যায়। পরে রহস্যজনক কারনে ছেড়ে দেয়। ঘটনার পর থেকে রণি হোসেন শুকুর পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় সুবিচারের জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবী জানান ভিকটিম পরিবার।

আদালত সূত্রে জানা যায়, এ ঘটনায় ভিকটিম কিশোরী পিতা মো; নুরুল হুদা বাদী হয়ে রণি হোসেন শুকুরসহ ৩ জনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। আদালত এ ঘটনায় আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী প্ররোয়ানা জারি করে। কিন্তু গ্রেফতারী প্ররোয়ানা জারির পরও আসামীরা এখনো গ্রেফতার হয়নি।

এ দিকে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে চন্দ্রগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত মো: এমদাদ জানান, গ্রেফতারি প্ররোয়ানা কপি থানায় এসেছে কিনা জানা নেই। আসলে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech