নৌকার মনোনয়ন প্রদানে প্রধানমন্ত্রী শহিদ বুদ্ধিজীবি পরিবারকে মূল্যায়ন করবেন

  

পিএনএস, মো:রাকিবুর রহমান রকিব, সরাইল থেকে : জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শনিবার বিকালে সরাইল বিশ্বরোড মোড়ে রশিদ সুপার মার্কেটের ২য় তলায় সাংবাদিক আইয়ূব খানের সভাপতিত্বে এক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ব্রাহ্মনবাড়িয়া-২ তথা সরাইল-আশুগঞ্জ নির্বাচনী এলাকায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশি এডভোকেট সৈয়দ তানবির হোসেন কাউছার উপস্থিত সাংবাদিকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বারে আইন পেশায় নিযুক্ত হয়ে দীর্ঘদিন জনগণের পাশে থেকে সেবা দিচ্ছেন।

ব্যাক্তিগতভাবে তিনি রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হিসেবে শহীদ বুদ্ধিজীবি মুক্তিযোদ্ধা এড. সৈযদ আকবর হোসেন বকুল মিয়ার নিকট দীক্ষা নিয়ে আওয়ামীলীগের রাজনীতির মাঝে সম্পৃক্ত হন। এড.সৈয়দ তানবির হোসেন কাউছার ছাত্র রাজনীতির পরে বিভিন্ন সময়ে সরাইল উপজেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তানব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সভাপতি,সরাইল সাহিত্য পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের গুরুত্বপুর্ণ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। অতার বাবা শহীদ বুদ্ধিজীবি ্এড. আকবর হোসেন বকুল মিয়াও একজন আলোক উজ্জ্বল ব্যাক্তিত্ব ছিলেন।

১৯৫৫ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া কলেজ ছাত্র সংসদে ছাত্রলগি মনোনিত সাধারণ সম্পাদক এবং তৎকালীন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য,বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মগবাজার শাখার সহ-সভাপতি,বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ছিলেন।বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ও বাংলাদেশ অভ্যুদয়ে তার অসামান্য অবদান প্রশংসনীয়। পরিতাপের বিষয়, মহান মুক্তিযুদ্ধে ১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বর পাকবাহিনী কতৃক ব্রাহ্মণবাড়িয়া কুরুলিয়া খালের পাড়ে এড.সৈয়দ আকরব হোসেন বকুল মিয়া ও তার ছোট ভাই সৈয়দ আফজল হোসেনসহ ৪০জনকে হত্যা করা হয়। শহীদ এড. সৈয়দ আকবর হোসেন বকুল মিয়াসহ ৬জন শহীদ আইনজীবি নামে ঢাকা বার এর সম্মুখে হ্নদয়ে বাংলাদেশ স্মৃতিফলক নির্মিত আছে। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কতৃক ১৯৯৮ সালে শহীদ বুদ্ধিজীবি এড. সৈয়দ আকবর হোসেন বকুল মিয়া নামে স্মারক ডাক টিকেট উম্মোচন করা হয়েছে।

এছাড়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া কাউতলী গোল চত্বরে সৌধ হিরন্ময় এ শহীদ বুদ্ধিজীবি হিসেবে দ্বিতীয নামটি খচিত রয়েছে।আপন আলোয় উদ্ভাসিত শহীদ বুদ্ধিজীবির সুযোগ্য সন্তান দীর্ঘদিন আইন পেশা নিবেদিত হয়ে জনসাধারনকে সেবা প্রদানকারী এডভোকেট কাউছার মানুষের সাথে সুসম্পর্ক স্থাপন করে বিশ্বস্থ এক অবস্থান তৈরী করে নিয়েছেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সৈয়দ তানবির বলেন, আওয়ামীলীগ সভানেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যাকে নৈাকার মনোনয়ন দিবেন আমরা সবাই মিলে মিশে তাকে বিজয়ী করাব। তবে আমি আশবাদী , প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার সহানুভূতি , ভালবাসা ও মুল্যায়নের অতীত উজ্জ্বল দৃষ্টান্তের ধারাবাহিকতায় শহীদ বুদ্ধিজীবির পক্ষে আমি নৈাকা প্রতিক পাব ইনশাল্লাহ।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল



 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech