শেরপুরে যৌতুক না পেয়ে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

  

পিএনএস, শেরপুর (বগুড়া) সংবাদদাতা : যৌতুক না পেয়ে বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় মোছা. শিউলী খাতুন (১৯) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। গত বুধবার (১১অক্টোবর) মধ্যরাতে উপজেলার কুসুম্বী ইউনিয়নের বাগড়া হঠাৎপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। যৌতুকলোভী স্বামী রানা ও তার পরিবারের সদস্যরা শারিরীক নির্যাতনের পর শ্বাসরোধে শিউলীকে হত্যা করেছেন বলে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে শ্বাশুরী শাহীনুর বেগমকে (৪৫) আটক করেছে।

শেরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) বুলবুল ইসলাম এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে রাতেই নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। বৃহস্পতিবার (১২অক্টোবর) সকালের দিকে ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (শজিমেক) মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পরপরই নিহতের স্বামীসহ অন্যরা পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে নিহতের শ্বাশুরীকে আটক করা হয়েছে। গৃহবধূ শিউলীকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, প্রায় দেড় বছর আগে উপজেলার বাগড়া হঠাৎপাড়া গ্রামের ইমান আলীর ছেলে মো. রানা মিয়ার সঙ্গে পাশের বাগড়া চকপোতা গ্রামের সিদ্দিক হোসেনের মেয়ে শিউলী খাতুনের বিয়ে হয়। সংসার জীবনে তাদের চার মাস বয়সের এক সন্তানও রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন সময়ে যৌতুকের দাবিতে স্বামী রানা ও তার পরিবারের অন্য সদস্যরা মিলে প্রায়ই শিউলীর ওপর নির্যাতন করতেন। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার (১১অক্টোবর) রাতেও তাকে নির্যাতন করা হয়।

একপর্যায়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে শয়নঘরের খাটের ওপর তার লাশ ফেলে রাখা হয়। খবর পেয়ে রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় আনেন। এদিকে পুলিশি উপস্থিতি টের পরিবারের সবাই পালিয়ে যায়। তবে শেষ অবধি হত্যার অভিযোগে শ্বাশুরীকে পুলিশ আটক করতে সক্ষম হয়।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech