লক্ষ্মীপুরে ৫ম শ্রেণির ছাত্রকে পিটিয়ে জখম

  

পিএনএস, লক্ষ্মীপুর পতিনিধি : লক্ষ্মীপুরে রায়পুরে মোরশেদ (১০) নামে ৫ম শ্রেণির এক ছাত্রকে পিটিয়ে রক্তাত্ত জখম করার অভিযোগ উঠেছে আক্তার নামে এক বেকারীর মালিকের বিরুদ্ধে। গত বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) বিকেলে উপজেলার উদমারা গ্রামের বেলফা মার্কেটের দিলশাদ বেকারীতে এ ঘটনা ঘটে।

মোরশেদ ওই এলাকার মোঃ সেলিমের ছেলে ও ঢাকা আহসান মিশন স্কুলের ৫ম শ্রেণির ছাত্র। নির্যাতনকারী আক্তার একই এলাকার আব্দুল মালেকের ছেলে ও দিলশাদ বেকারীর সত্ত্বাধীকারী।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, বিগত দুই বছর ধরে ওই ছাত্রের বড় ভাই আনোয়ার হোসেন উদমারা দিলশাদ বেকারীতে শ্রমিকের কাজ করতো। গত কিছু দিন আগে ওই বেকারী থেকে চাকুরী ছেড়ে দিয়ে ঢাকা একটি বেকারীতে কাজ করে। এর জের ধরে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মোরশেদ ওই বেকারীতে টেলিভিশন দেখতে গেলে বেকারীর মালিক আক্তার (৩২) লাঠি দিয়ে পিটিয়ে রক্তাত্ত জখম করে। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এবিষয়ে দিলশাদ বেকারীর স্বত্তাধীকারী আক্তার হোসেন বলেন, ওই ছেলেটির ভাই গত দেড় বছর পূর্বে আমার বেকারী থেকে চাকুরী ছেড়ে দিয়েছে। মোরশেদ বেকারীতে চুরি করতে আসলে তাকে হাতেনাতে আটক করে মারধর করা হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সফি উল্যাহ বলেন, মোরশেদ বাজার থেকে আসার সময় সাঁটারের নিচে দিয়ে টেলিভিশন দেখতে ছিল। এসময় বেকারীর কর্মচারীরা তাকে আটক করে। আমি গিয়ে দেখি তার শরীরে বিভিন্ন অংশে জখম রয়েছে। পরে তার স্বজনদের দিয়ে হাসপাতালে পাঠাই।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech