বেনাপোলে কমিউনিটি ক্লিনিকে মাসে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২ হাজার নারী শিশু পুরুষ

  

পিএনএস, বেনাপোল প্রতিনিধি : দিন বদলের ভিশন বাস্তবায়নে যশোরের শার্শা-বেনাপোলে পল্লী গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো চিকিৎসা ক্ষেত্রে এলাকার মানুষের ব্যাপক উপকারে আসছে। গা গ্রামের প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকে মাসে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২হাজারও নারী শিশু পুরুষ-কমেছে শিশু ও মার্তৃত্ব ঝুঁকির হার-উপকৃত হচ্ছেন গ্রামের মানুষ সেবা বাড়াতে সরকারের আরো সহযোগিতা কামনা করেছেন স্থানীয়রা।

যশোরের শার্শা উপজেলায় সাড়ে ৪ লাখ নাগরিকের বসবাস। চিকিৎসা সেবায় রয়েছে একটি মাত্র সরকারি হাসপাতাল। গা-গ্রামের মানুষের চিকিৎসা সেবায় উপজেলায় বাহাদুরপুর,পুট্খালি,সামলাগাছি,কাগজ পুকুর,যাদবপুর,নিজামপুর,সাদিপুর ঘিবা,বালুন্ডা সহ ৩৯টি কমিউনিটি ক্লিনিকে হাতের নাগালেই বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা পাচ্ছেন অসহায় অবহেলিত ও খেটে খাওয়া দিন মুজুর মানুষ।

সরকারি হাসপাতালে মাসে অন্তত ১২ হাজার মানুষ চিকিৎসা নিলেও কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসা পাচ্ছেন মাসে প্রায়৬০হাজার নারী শিশু বৃদ্ধ সহ সাধারন মানুষ এমনটাই জানান উপজেলা ¯া^স্থ্য কর্মকর্তা। সরকারের সহযোগিতা সহ হাতের নাগালে চিকিৎসা পেয়ে খুশি এলাকাবাসি। তবে ঔষধ ও ক্লিনিকের বেড বৃদ্ধি সহ ভালমানের ডাক্তার নিয়োগের দাবী জানান তারা।

চিকিৎসা নিতে আসা রোগী মনিরা বেগম, শিক্ষার্থী বিউটি খাতুন ও আরিজিনা খাতুন বলেন-কমিউনিটি ক্লিনিক এলাকার মানুষের অনেক উপকারে আসছে। জর চুলকানি কাটা ফাটা,ব্যাথা সহ বিভিন্ন রোগের ঔষধ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। ফলে বিনামুল্যে পাচ্ছেন ঔষধ। লাগছে না বাজারে যাওয়ার খরচ। মা ও শিশুরা ঝামেলা ছাড়ায় নিতে পারছে সেবা। এর মান আরো বাড়ানোর দাবী জানান তারা।

কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রভাইডার(সিএইচ সিপি) চিকিৎসক নিজামপুর-রিপা খাতুন-যাদবপুর শার্শা ইয়ামিনুর রহমান ও বেনাপোল- বিকাশ কুমার দাস বলেন,গ্রামের তৃর্নমুল পর্যায়ের মানুষের সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত সেবা কমিউনিটি ক্লিনিকে সেবা দিচ্ছেন তারা। প্রতিদিন ১টি ক্লিনিকে নারী শিশু বৃদ্ধ সহ ৫০থেকে ৮০জন রোগীর চিকিৎসা সেবা সহ বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছে প্যারা সিটামল, কট্রিম, মেট্রিল,হিস্টাসিন,ডোক্সিন সহ বিভিন্ন প্রকার ঔষধ। উপকার পাচ্ছন তারা। তবে সরকার বিভিন্ন প্রকার ঔষধ সরবরাহ কমিয়ে দেওয়ায় বিপাকে পড়ছেন রোগী ও চিকিৎসকরা। এর সুরাহা চান তারা।

কাগজপুকুর গ্রামের নুর ইসলাম জানান,সরকার হাতের কাছে পৌছে দিয়েছেন চিকিৎসা সেবা-ছেলে মেয়ে স্ত্রী ও প্রতিবেশীরা সহজেই পাচ্ছেন সেবা এতে সরকারের প্রতি কৃতঙ্গতা ও খুশি তারা-ক্লিনিকের আরো মান বৃদ্ধির দাবী জানান তিনি।

শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: আশোর কুমার শাহা-বলেন,স্বাস্থ্য বান্ধব সরকারের বাস্তবায়নে শিশু ও নারীদের প্রাথমিক চিকিৎসায় কাজে আসছে কমিউনিটি ক্লিনিক। তবে ঔষধ স্বল্পতা রোধে সরবরাহ বৃদ্ধি সহ চিকিৎসা সেবার মান উন্নয়নে কমিউনিটি হেল্থ কেয়ার প্রভাইডার সহ উপসহকারি স্বাস্থ্য কর্মকর্তা নিয়োগের পরিকল্পনার কথা উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

এলাকার মানুষের আস্তা অর্জন করেছে কমিউনিটি ক্লিনিক। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ সুষ্ট ব্যাবস্থাপনা সহ প্রতিনীয়ত মনিটরিং করছেন। চাহিদা অনুযায়ি ঔষধ সরবরাহে স্বাস্থ্য বিভাগের দৃষ্টি আকর্ষক করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech