সিলেটে সিটি করপোরেশনের ‘ওয়াশব্লক’ ভাঙল আলিয়ার ছাত্ররা - মফস্বল - Premier News Syndicate Limited (PNS)

সিলেটে সিটি করপোরেশনের ‘ওয়াশব্লক’ ভাঙল আলিয়ার ছাত্ররা

  

পিএনএস ডেস্ক : সিলেট নগরীর চৌহাট্টায় সিটি করপোরেশনের নির্মাণাধীন ‘ওয়াশব্লক’র নির্মাণ কাজে বাধা দিয়েছে সরকারি আলিয়া মাদরাসার শিক্ষার্থীরা। হামলা চালিয়ে তারা ‘ওয়াশব্লক’র সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলেছে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে সিটি করপোরেশনের ‘ওয়াশব্লক’ (গণশৌচাগার ও গোসলখানা) প্রকল্পের কাজ।

সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ এ ঘটনাকে ন্যাক্কারজনক বলে দাবি করেছে। রবিবার দুপুর ১২টার দিকে হামলা ও ভাঙচুরের এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, সিলেট সিভিল সার্জন ও আলিয়া মাদরাসার কিছু জায়গা নিয়ে উন্নয়ন সংস্থা ওয়াটার এইডের সহযোগিতায় সিটি করপোরেশন ‘ওয়াশব্লক’ নির্মাণের উদ্যোগ নেয়। ইতোমধ্যে প্রকল্পটির জন্য জায়গা চিহ্নিত করে সীমানপ্রাচীরও নির্মাণ করা হয়। সীমানা প্রাচীর নির্মাণের পর আলিয়া মাদরাসার শিক্ষার্থীরা ‘ওয়াশব্লক’র বিরোধীতা শুরু করেন। মাদরাসার জায়গায় ‘ওয়াশব্লক’ নির্মিত হলে ‘পবিত্রতা’ নষ্ট হবে বলেও অভিযোগ তুলেন তারা।

তবে আলিয়া মাদরাসার শিক্ষার্থীদের এই অভিযোগ অস্বীকার করে সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ বলছে ওই ওয়াশব্লক’র কারণে পবিত্রতা নষ্ট হওয়ার কোন আশঙ্কা নেই। তারা মাদরাসা থেকে নেয়া জায়গায় গোসলখানা ও সিভিল সার্জনের জায়গায় শৌচাগার নির্মিত হবে।

সিটি করপোরেশনের এই আশ্বাসের পরও রবিবার শিক্ষার্থীরা হামলা চালিয়ে ওয়াশব্লকের সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলে।

পবিত্রতা নষ্টের পাশাপাশি আলীয়া মাদরাসার শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করছেন সিটি করপোরেশন জোর করে ওই জায়গায় ‘ওয়াশব্লক’ নির্মাণ করতে চাইছে। তাই তারা মিছিলসহকারে গিয়ে সীমানা প্রাচীর ভেঙেছেন।

ওয়াশব্লকের সীমানা প্রাচীর ভাঙচুরের সত্যতা নিশ্চিত করে সিলেট কোতোয়ালী থানার ওসি গৌসুল হোসেন জানান, চৌহাট্টায় সিটি করপোরেশন একটি ‘ওয়াশব্লক’ নির্মাণের কাজ করছিল। আলীয়া মাদরাসার শিক্ষার্থীরা এর বিরোধীতা করে রবিবার দুপুরে তা ভেঙে ফেলেছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

এ ব্যাপারে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানান, আলিয়া মাদরাসা কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়েই চৌহাট্টায় ‘ওয়াশব্লক’ নির্মাণের কাজ শুরু করা হয়। সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে চিঠি দেয়ার পর মাদরাসা কর্তৃপক্ষ ওয়াশব্লকের জন্য স্থানও নির্ধারণ করে দেন।

এরপর এনিয়ে বিরোধীতা করা রহস্যজনক। তিনি বলেন, নগরীর ব্যস্ততম এলাকায় ওয়াশব্লক নির্মাণের দাবি নগরবাসীর দীর্ঘদিনের। তাই এই উন্নয়ন কাজে বাধা দেয়ার মাধ্যমে হামলাকারীরা নগরবাসীর প্রত্যাশা পূরণে ব্যাঘাত সৃষ্টি করছেন।

মেয়র আরিফ আরও বলেন, ওয়াটার এইডের সহযোগিতায় নির্মিতব্য এই ‘ওয়াশব্লক’টি ঢাকার গুলশান ও বনানীতে নির্মিত আধুনিকমানের ওয়াশব্লকের মতো হবে। নগরবাসী ছাড়াও সিলেটে বেড়াতে আসা পর্যটকরা যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যবহার করতে পারেন সেজন্য এই ওয়াশব্লকে পুরুষ ও নারীদের জন্য আলাদা গোসলখানা ও শৌচাগার থাকবে।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech