রামগঞ্জে শ্লীলতাহানীর মূল্য ১০ হাজার টাকা

  

পিএনএস, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার চন্ডিপুর গ্রামে রোববার সন্ধ্যায় গ্রাম্য শালিসে নারীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগে আবুল কাসেম নাকে একজন কে ১০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়ে। তাৎক্ষনিক জরিমানার টাকা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় শালিসদারা বখাটের অটোরিক্সা আটক করে রেখেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এলাকাবাসী ও স্থানীয়রা জানান, চাঙ্গিরগাও গ্রামের আবদুর রহিমের মেয়ে লাকি বেগম ৬ মাস পুর্বে চন্ডিপুর গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে আবুল কাসেমের কাছ ২০হাজার টাকা নেয়। আবুল কাসেমের প্রতিমাসে টাকা নেওয়ার সময় লাকি বেগমকে নানা ভাবে কু-প্রস্তাব দিতো। ঘটনার দিন রোববার দুপুরে বকুলতলা বাজারে টাকা দিতে গেলে কাসেম কৌশলে লাকির শরীরে হাত দেয়।

এসময় লাকি চিৎকার দিলে বাজার ব্যবসায়ীরা জড়ো হয়ে কাসেমকে আটক করে এবং উপজেলা চেয়ারম্যানের সহকারী ফয়েজ আহম্মেদের নেতৃত্বে গ্রাম্য মাতব্বর মানিক,নুরু,মনির,কামাল সন্ধ্যায় শালিস ডেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে অটোরিক্সা আটক রাখায় রায় দেয়।

এ ব্যাপারে লাকির মা কুলসুম বেগম বলেন,কাসেম সম্পর্কে মেয়ের চাচা হয়। মোবাইলে এবং সরাসরি বিভিন্ন সময়ে এমন অশ্লীল ভাষা কথা বলে যা স্বামী-স্ত্রীর মাঝেও হয় না।

লাকি বেগম বলেন,গ্রাম্য শালিসের রায়ের বিরুদ্ধে কিছুই বলার নেই। অভিযোগের ব্যাপারে আবুল কাসেম বলেন,আমার অপরাধের বিচার করেছে শালিসদারগন। জরিমানার টাকা দিয়ে অটোরিক্সা নিবো।

উপজেলা চেয়ারম্যানের সহকারী ফয়েজ আহম্মেদ বলেন,ঘটনাটি চেয়ারম্যান,ওসি সবাই জানে। গ্রামের গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সঠিক বিচারই হয়েছে বলে তার দাবী।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech