নিয়াজুলসহ দায়ীদের গ্রেপ্তার দাবি বিএফইউজের

  

পিএনএস ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জে ফুটপাতে হকার ইস্যুকে কেন্দ্র করে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের ওপর অস্ত্র প্রদর্শনকারী নিয়াজুল ইসলামসহ দায়ী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার জানানো হয়েছে। এ জন্য প্রশাসনকে ২৪ ঘণ্টা সময় দিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন বিএফইউজের নেতৃবৃন্দসহ সাংবাদিক সমাজ।

আজ বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় মানববন্ধন থেকে এই দাবি জানানো হয়। নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব ও নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হয় এই মানববন্ধন।

নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে নাফিজ আশরাফের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব ওমর ফারুক, সাবেক মহাসচিব আব্দুল জলিল ভূঁইয়া, নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কবি হালিম আজাদ, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি শফিউদ্দিন বিটু, নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুস সালাম, নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক বুলবুল আহাম্মদ প্রমুখ।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব ওমর ফারুক বলেন, সারা দেশে সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে তাঁরা হামলা ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন। প্রশাসনের সহায়তায় এই ধরনের হামলা হলেও তাদের গ্রেপ্তার করা হয় না। সাংবাদিকদের রুটি-রুজির জন্য আন্দোলন করতে হয়। এখনো নবম ওয়েজ বোর্ডের জন্য আন্দোলন করতে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিকেরা পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে পুলিশে উপস্থিতিতে সন্ত্রাসীরা অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়েছে। তিনি বলেন, ‘আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারী সন্ত্রাসী নিয়াজুলসহ দায়ী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তার করা না হলে আমরা বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলব।’

নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুর রহমান বলেন, পুলিশের নিষ্ক্রিয় ভূমিকার কারণে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। তাঁদের লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে। সন্ত্রাসীদের ওই হামলায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক শরীফউদ্দিন, মেয়র আইভীসহ শতাধিক লোক আহত হয়েছেন। অবিলম্বে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী নিয়াজুলসহ দায়ী ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান তিনি।

গত সোমবার সাংসদ শামীম ওসমান ফুটপাতে উচ্ছেদ করা হকারদের বসানোর ঘোষণা দেন। এরপর গতকাল মেয়র আইভী জনসচেতনতামূলক প্রচারণার সময় খোদ মেয়র আইভী, সাংবাদিকসহ শতাধিক লোক আহত হন। এ সময় নিয়াজুল অস্ত্র হাতে গুলি করার চেষ্টা করলে তাঁকে পিটুনি দেয় লোকজন। পুলিশের সঙ্গে স্থানীয় লোকজনের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনায় পুরো বঙ্গবন্ধু সড়ক রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এ সময় দায়িত্ব পালনকালে সন্ত্রাসীরা সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিনসহ ১২ জন সাংবাদিক আহত হন।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech