নাটোরের বড়াইগ্রামের রাজাপুরে একুশে বই মেলার উদ্বোধন করলেন ভূমিমন্ত্রী

  

পিএনএস : ভাষাসৈনিক বীর মুক্তিযোদ্ধা ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এমপি বলেছেন, একুশ না মানে ধর্ম, না মানে জাত, না মানে ধর্ম, না মানে বর্ণ, একুশ শ্বাশত, একুশ আজ সারা বিশে^র অহংকার। এদেশের হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, মুসলমান আমরা সবাই বাঙালি। একুশ আমাদের সকলের।

গতকাল রাতে নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের রাজাপুর হাই স্কুল মাঠে ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৭ দিন ব্যাপী বই মেলার আয়োজনের প্রথম দিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এম.পি. এসব কথা বলেন।

ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ আরও বলেন, একুশ বাঙালি জাতির হৃদয় ও মননে বাঙালি জাতীয়তাবোধ চেতনার উন্মেষ ঘটিয়েছিল। ১৯৫২ সালের ঊষালগ্নে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে সেদিনকার আন্দোলনরত রফিক, সালাম, বরকত, জব্বারসহ নাম না জানা আরো অনেককে পাকিস্তানি শাসক গোষ্ঠী গুলি করে হত্যা করে। সেদিন থেকেই বাংলা ভাষা একটি মাইল ফলক হয়ে আছে। বাঙালি জাতীয়তাবাদের সূচনা সেদিন থেকেই। বাংলা ভাষার ইতিহাস বাঙালি সব ছেলেমেয়েকে জানাতে হবে।

তিনি বলেন, একুশে বই মেলার আয়োজনের মধ্য দিয়ে নাটোর জেলা ও সীমান্তবর্তী পাবনা জেলার মধ্যে একটি মিলন মেলার সূচনা ঘটে রাজাপুর। ভূমিমন্ত্রী শরীফ আরও বলেন, বিশ্বের সকল বাঙালির বর্তমান আশা ভরসার প্রতীক প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় প্রতিটি মানুষের জন্য পাঁচটি মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা।

জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই আমরা রূপকল্প ২০৪১ বাস্তবায়নে জাপান, ফ্রান্স, আমেরিকা দেশের সমপর্যায়ের কাতারে বাংলাদেশকে দাড় করাতে এগিয়ে চলেছি। পরে মন্ত্রী মেলার বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন ও বিভিন্ন বই ক্রয় করেন। মেলার উদ্বোধনী দিনে ৩০টি বই স্টলে বিভিন্ন লেখকদের লিখা গল্প, কবিতা, উপন্যাস, ছড়া, নাটক, ছোটদের জন্য কল্পকাহিনী, ভৌতিক গল্প, ভৌগোলিক উপাদান, কৃষি, শিল্প, বিশিষ্ট মনিষীদের আত্মজীবনী ও কাহিনীভিত্তিক বিভিন্ন ধরনের বই সাজিয়ে বসেন পুস্তক বিক্রেতারা।

মেলার চারপাশে বিভিন্ন খাবারের দোকান, খেলনা সামগ্রী, নাগরদোলা, দোলনা বই প্রেমিক, ক্রেতা, ছোট বড় আগত সকলের মনকে আকৃষ্ট করে। মফস্বল এলাকায় এ ধরনের আয়োজন সত্যিই বিরল।

একুশে বই মেলা সভাপতিত্ব করেন জুলফিকার মতিন। মেলায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত থাকেন ঈশ^রদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাছরিন আক্তার, বড়াইগ্রাম উপজেলা নির্বাহী অফিসারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অভিজিৎ বসাক, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক বশির আহমেদ বকুল, মুলাডুলি ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম মালিথা, আবদুস সালাম খান, এবিএম আশারাফুল ইসলাম স্বপন প্রমুখ।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech