নাসিনগর সুষ্ঠু নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনার ও প্রশাসনের সহায়তায় চেয়েছেন রেজোওয়ান আহমেদ

  

পিএনএস, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে মোঃ রাকিবুর রহমান রকিব : ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ১ সংসদীয় ২৪৩ নাসিরনগর আসনে উপ- নির্বাচন ১৩ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। ওই উপ-নির্বাচনে ৩ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিন্দন্দ্বিতা করছেন। আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা প্রতীক প্রার্থী বি,এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম,জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী লাঙ্গল প্রতীক রেজোওয়ান আহমেদ ও ইসলামী ঐক্যজোটের মনোনীত প্রার্থী মিনার প্রতীক এ,কে,এম আশরাফুল হক।

সরাইলের এক অনুষ্ঠানে জাপার চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ বক্তব্যে বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশনের উপর কোন আস্থা নেই। জাপার প্রার্থী রেজোওয়ান আহমেদ জানান প্রচুর বহিরাগত নির্বাচনী এলাকায় ঘুরাঘুরি করছে। এরা জাপার কর্মীদের অস্ত্র প্রদর্শন করছেন। তাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে সুষ্ঠু নির্বাচনকে বাধাগ্রস্থ করা। তিনি আরো বলেন ইউনিয়ন পরিষদের মত আসনটি ক্ষমতাসীন দলটি নিয়ে যাবে বলে শংশয় প্রকাশ করছেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সরকারের ছোট ভাই মোজাম্মেল হক সরকার জাপার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন। সাম্প্রতি উপজেলা চেয়ারম্যান এ,টি,এম মনিরুজ্জামান সরকার,সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ লিয়াকত আব্বাস টিপু, হরিপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি একরাম চৌধুরীর সঙ্গে দলের মনোনীত প্রার্থী বি,এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রামের বাগবিতন্ডা হয়। বর্তমানে দলীয় প্রার্থীর সংগে থাকলেও তা স্পষ্ট নয়। উপজেলা চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সরকার বলেন এসব অপপ্রচার। নৌকার প্রতিকের স্বার্থে সবাই এক। তিনি ও তার পরিবারের সবাইকে নৌকা পক্ষে কাজ করছেন। বি,এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম বলেন কেন্দ্রীয় নেতারা তাকে দেখতে আসছেন।

শনিবারের পর তারা এলাকা থাকবেন না। এখানে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ থাকুন তিনি চান। তিনি বলেন আমি স্কুল ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতি করছি। অনৈতিক কোন কিছু হোক আমি চাই না। দলের দ্বন্ধ সম্পর্কে তিনি বলেন এখানে মান অভিমান থাকলেও কোন দ্ধন্ধ বা বিরোধ নেই। তবে জামাত,বি,এন,পি ষডযন্ত্র করছে।অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) ইকবাল হোসাইন বলেন, সবকটি কেন্দ্রকে অধিক গুরুত্ব দিচ্ছি। আনসার সদস্যদের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রে ১০ ও সাধারণ কেন্দ্রে ৪ জন করে পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। রিটানির্ং অফিসার সাহেদুন্নবী চৌধুরী জানান, নির্বাচনের সব প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে। ১৫ জন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও পুলিশ সুপার সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থা তদারকি করবেন। আশা করছি ভোট কেন্দ্রে কোন ধরনের ঝামেলা করতে পারবে না। এখন পর্যন্ত কোন প্রার্থী লিখিত অভিযোগ করেননি। তবে মৌখিকভাবে অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সকলের সহযোগিতায় একটি অবাধ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট উপহার দেওয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছি।সহকারী রিটানির্ং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শফিকুর রহমান বলেন নির্বাচনের সব প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

এ আসনে মোট ১৩ ইউনিয়নে ২ লক্ষ ১৪ হাজার ০৯ জন ভোটার রয়েছে। এর মধ্যে নারী ভোটার রয়েছে ১ লক্ষ ৩ হাজার ৫৯৯ জন ও পুরুষ ভোটার রয়েছে ১ লক্ষ ১০ হাজার ৪১০ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ৭৪টি আর ভোট কক্ষ ৩৬৪টি।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech