ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাংবাদিকদের হয়রানি

  

পিএনএস ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনে উপ-নির্বাচনের সংবাদ কাভারের জন্য কার্ড আনতে গিয়ে হয়রানির শিকার হয়েছেন বেশ কয়েকজন সাংবাদিক। সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

কসবা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জিল্লুর রহমান বেশ কয়েকজন সাংবাদিককে হয়রানি করেন বলে অভিযোগ করেন সাংবাদিকরা। বিষয়টি মৌখিকভাবে জেলা প্রশাসক ও কুমিল্লার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তাকে জানিয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব।

সোমবার দুপুর ১টার দিকে কার্ড আনতে গিয়ে হয়রানির শিকার হওয়া নিউজ ২৪ টিভির জেলা প্রতিনিধি মাসুক হৃদয় বলেন, সাংবাদিক হিসেবে নির্বাচনের সংবাদ কাভার করা আমার দায়িত্ব। ঘণ্টা দেড়েক অপেক্ষায় রেখে ওই কর্মকর্তা কার্ডের জন্য আমাদের জেরা করেছেন। এটিএন নিউজ থেকে নিলে এটিএন বাংলা পাবে না এই মর্মে এটিএন বাংলার জেলা প্রতিনিধি ইসহাক সুমনের কার্ড তিনি আটকে দিয়েছিলেন। তিনি জানেনই না এটিএন নিউজ ও এটিএন বাংলা দুটি পৃথক টেলিভিশন চ্যানেল।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সদস্য ও দৈনিক মাতৃছায়ার জেলা প্রতিনিধি মজিবুর রহমান খান বলেন, কার্ডের জন্য ওই কর্মকর্তা আমিসহ কয়েকজন সাংবাদিককে অনেকটা জেরা করেছেন। তিনি অস্তিত্বহীন এক প্রেসক্লাবের অখ্যাত পত্রিকার প্রতিনিধিকে কার্ড দিয়েছেন। অথচ মূল ধারার সাংবাদিকদের তিনি হয়রানি করেছেন।

যমুনা টিভির জেলা প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম বলেন, আগামীকাল আমাদের চ্যানেলে নির্বাচন নিয়ে লাইভ করার জন্য সিলেট থেকে একটি টিম আসছে। রাত ৮টার দিকে ওই টিমের সদস্যদের জন্য কার্ড আনতে গেলে তিনি কার্ড দিতে প্রথমে অপারগতা প্রকাশ করেন। অনেকক্ষণ জেরার পর তিনি কার্ড দিতে রাজি হন।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দীপক চৌধুরী বাপ্পী জাগো নিউজ বলেন, সাংবাদিকদের হয়রানির বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসককে মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে।
তবে সাংবাদিকদের হয়রানির বিষয়টি অস্বীকার করেছেন কসবা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জিল্লুর রহমান।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech