কচুয়ায় চা খাওয়াকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ

  

পিএনএস, (আফাজ উদ্দিন মানিক) কচুয়া : চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার চৌহমুনী বাজার হোটেলে চা খাওয়াকে কেন্দ্র করে গত রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে মুরাদপুর ও বরইগাঁও গ্রামের কতিপয় লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পরেরদিন সোমবার রাত ৮ টার দিকে ওই দুই গ্রাম বাসীরা পুনরায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষ চলার এক পর্যায়ে খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে দুই পক্ষকে শান্ত করার চেষ্টা করে।কিন্তু সংঘর্ষে লিপ্তরা পুলিশের কথায় কর্নপাত না করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও পরষ্পরের প্রতি ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতিকে আরো জটিল করে তুলে। এ অবস্থায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ তিন রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে।

কচুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শাহজাহান কামাল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান- পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।কিন্তু সংঘর্ষে লিপ্ত লোকজনরা খুবই মারমুখী হয়ে উঠায় ও অনেক ক্ষয়-ক্ষতি হওয়ার আশংকা থাকায় পুলিশ তিন রাউন্ডের ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং পরবর্তীতে আবারোও শান্তি ভঙ্গের আশংকায় নিবারন মূলক ফৌজদারি কার্যবিধি মোতাবেক ১৫১ ধারায় ৭ জনকে আটক করে কোর্টে সোপর্দ করার মধ্য দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

আটককৃতরা হলো- মুরাদপুর গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের পুত্র আল-আমিন (৩৭),বাচ্চু মিয়ার পুত্র রাকিব হাসান (২২),সিরাজুল হকের পুত্র মাইনুল ইসলাম(৪২),নুরুল হক মজুদারের পুত্র বাকি বিল্লাহ মজুমদার(২০),বাচ্চু মিয়ার পুত্র রাসেল হোসেন(২৪), হাজিগঞ্জ থানার তারাপাল্লা গ্রামের শহিদুল্লাহ ছেলে সফিকুল ইসলাম(৩৫),আসমত আলীর পুত্র তারেক(২০)।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech