চট্টগ্রামে অল্প বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতা

  

পিএনএস ডেস্ক : চট্টগ্রামে অল্প বৃষ্টিতেই নগরের নিন্মাঞ্চলে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। বুধবার সকালে হওয়া বৃষ্টির পানি জমে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। তবে বৃষ্টির পানির সঙ্গে যোগ হয়েছে জোয়ারের পানি। ফলে অফিসগামী, কর্মজীবী, সাধারণ মানুষ ও শিক্ষার্থীদের চরম ভোগান্তির মুখোমুখি হতে হয়েছে।

আজ সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জোয়ার শুরু হয়ে দুপুর ১টার পর থেকে ভাটা নামতে শুরু করবে।

পতেঙ্গার আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, কালবৈশাখীর প্রভাবে বৃষ্টি হচ্ছে।

লঘুচাপের বর্ধিতাংশ বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর প্রভাবে চট্টগ্রাম, রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ আব্দুর হান্নান বলেন, ‘আজ সকালে কালবৈশাখীর প্রভাবে বিভিন্ন স্থানে ভারী বৃষ্টিপাত হয়। এটি চট্টগ্রামসহ সারাদেশে আগামী কয়েকদিন হওয়ার সম্ভাবনা আছে।’

জানা যায়, সকালের ভারী বৃষ্টিপাত ও জোয়ারের পানিতে নগরের নিম্নাঞ্চলে জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। বৃষ্টি ও জোয়ারের পানি এক সঙ্গে ওঠায় নগরের নিম্নাঞ্চলের সড়ক ও অলিগলিতে জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। নগরের বাকলিয়া, চকবাজার, বাদুরতলা, মুরাদপুর, চাকতাই, খাতুনগঞ্জ, আগ্রাবাদ, হালিশহরসহ অধিকাংশ নিন্মাঞ্চলে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে।

নগরবাসীর অভিযোগ, জলাবদ্ধতা নিরসন নিয়ে সিটি কর্পোরেশন এবং সিডিএর রশি টানাটানির খেসারত দিতে হচ্ছে নগরবাসীকে। সামান্য সময়ের বর্ষণে যদি এমন জলাবদ্ধতা হয়, তাহলে বর্ষার ভারী বর্ষণে নগরের কী অবস্থা হয় তা এখনই ধারণা করা যায়।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) সুদীপ বসাক বলেন, ‘সিটি কর্পোরেশন বর্ষা মৌসুমে নালা নর্দমা পরিস্কারসহ প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। ফলে পানি দীর্ঘ সময় ধরে স্থায়ী হয়নি।’

পিএনএস- জে এ -মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech