ডিমলায় অসহায় সিরাজুল ও তার স্ত্রী ন্যায় বিচার চায়

  

পিএনএস, নীলফামারী ডিমলা প্রতিনিধি : নীলফামারী ডিমলা উপজেলার ৮ নং ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়নে উত্তর সোনাখুলী মৌজার মৃত শমসের আলীর ছেলে সিরাজুল ইসলাম (২৬), তার স্ত্রী মহেছেনা বেগম (২৪) কে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ডাং-মার করে মেডিকেলে ভর্তির অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে।

অভিযোগে প্রকাশ গত ২১ মে দুপুর আনুমানিক ১২ টার সময় একই গ্রামের প্রতিবেশী মোঃ কাল্টা মামুদের ছেলে মোক্তার (৪৬) এবং আলাউদ্দিন (৪০), নিজ স্বার্থ হাচিলের জন্য ১৫ শতাংশ জমি দানপত্র দিবে মর্মে জবরদখল জমির উপর অসহায় সিরাজুল ইসলামকে বসতভিটা স্থাপন করে দেয়। যা সিরাজুল জানতো না এটি জবর দখল জমি। উক্ত জমির উপর বাড়ী করার প্রায় ৯ বছর হলেও এখন পর্যন্ত দানপত্র জমি দেওয়া তো দুরের কথা উল্ট তার উপর বর্তমানে পাশবিক নির্যাতন নিপীড়ন চালিয়ে আসছে তারা । সিরাজুল আরও জানায় ১ সপ্তাহ আগে কুমিল্লা থেকে কাজ করে ১২ হাজার টাকা নিয়ে বাড়ী আসি ।

উক্ত টাকা বালিশের নিচে রাখি এবং পরের দিন সেই টাকা অনেক খোঁজাখুজির পর পাওয়া না গেলে টাকার কথা প্রতিবেশী যারা বাড়ীতে আসে তাদেরকে জিজ্ঞাস করি। এমতাবস্থায় হাবিবুর রহমানকে জিজ্ঞাসা করিলে সে শোনা মাত্র সে চিৎকার করে প্রতিবেশী রজ মেম্বারের ছেলে হাব্বি (৩৫), মোক্তার , আলাউদ্দিন গং দলবদ্ধ হয়ে বাড়ীর টিনসেড বেড়া চোট মেরে ভেঙ্গে দেয় এবং ঘরের আসবাব পত্র ভেঙ্গে তছনছ করে দেয় এতে প্রায় ১ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয় এবং সিরাজুল ইসলামকে লোহার রড, লাঠিসোঠা দিয়ে এলাপাতারি মার-ডাং করে এবং তাদের নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পায়নি তার স্ত্রী মোছাঃ মহেছেনা বেগম । ফলে তারা উভয়ই জ্ঞান হারিয়ে ফেলে এতে এলাকাবাসী দৌড়ে এসে তাদের অবস্থা বেগতিক দেখলে ভ্যান যোগে জলঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল এ ভর্তি করায় ।

এইদিকে তার বড় ভাই রেয়াজুল ইসলাম অসহায় ছোট ভাই ও তার স্ত্রীর ন্যায় বিচারের জন্য স্থানীয় এলাকার মান্যগন্য ব্যক্তিদের ও ইউপি চেয়ারম্যানের সরনাপন্ন হয় । এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি ।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech