আখাউড়া মাদকের গডফাদার নোয়াখাইল্লা সুমন গ্রেফতার

  



পিএনএস, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আখাউড়া উপজেলা মাদক ব্যবসার গডফাদার নামে খ্যাত কোটিপতি সুমন ওরফে নোয়াখাইল্লা সুমন (৩৬)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার ভোরে আখাউড়া বাইপাস সড়ক থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে আখাউড়া, ময়মনসিংহ ও ঢাকা যাত্রাবাড়ী থানায় ৭টি মাদক মামলা রয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আখাউড়া থানা পুলিশ নোয়াখাইল্লা সুমনকে আজ শুক্রবার ভোরে আখাউড়া শহর বাইপাস সড়ক থেকে গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে আখাউড়া থানায় ৫টি, ময়মনসিংহ থানায় ১টি ও ঢাকা যাত্রাবাড়ী থানায় ১টি মাদক মামলা রয়েছে। আটককৃত সুমন ওরফে নোয়াখাইল্লা সুমনের বর্তমান বাড়ি আখাউড়া পৌরসভার রাধানগরে। তার বাবার নাম মোহাম্মদ আলী।
খোজ নিয়ে জানাগেছে, সুমন ওরফে নোয়াখাইল্লা সুমনের আসল নাম খোকন মিয়া। আখাউড়া রাধানগরে বসবাস করলেও তার মূল বাড়ি নোয়াখালিতে। এই সুমন আখাউড়া আসার পর রেলস্টেশনে পানি বিক্রয় করে হতদরিদ্রের জীবন যাপন করতো। কয়েক বছর পর পানি বিক্রয় ছেড়ে ছোট খাট ব্যবসা বানিজ্য শুরু করে। ৫ বছর আগে অর্থের লোভে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে যায়। একসময় মাদক ব্যবসার গডফাদারে পরিণত হয়। প্রথমে খোকন মিয়া থেকে সুমন পরে নোয়াখাইল্লা সুমন নামে খ্যাতি লাভ করে এলাকায়। সাম্প্রতিককালে মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান শুরু হলে সুমন আখাউড়া থেকে পালিয়ে যায়।

এদিকে খোজ নিয়ে আরো জানা যায়, গত ৫ বছরে মাদক ব্যবসা করে কমপক্ষে ৩০ কোটি টাকার মালিক হয় এই নোয়াখাইল্লা সুমন। এই সময় মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে ৭টি মামলা হয়। সাম্প্রতিকালে আড়াই কোটি টাকা ব্যয় করে দুইটি মিনি বাস ক্রয় করার পর সবার নজরে আসে। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন সড়ক ও মহাসড়কে ৪টি ট্রাক চলছে তার। তার দুই কন্যা সোনালী ও আহেলী নামে দুইটি মিনি ট্রাক চলছে আখাউড়ায়। কোটি টাকা ব্যয় করে ঢাকায় বাড়ি করেছে ও আখাউড়া পৌরশহরের কলেজপাড়া আর রাধানগরেও দুইটি বাড়ি রয়েছে বলেও জানাগেছে।
খোজ নিয়ে আরো জানাগেছে, ইয়াবা ও গাজা ব্যবসায়িদের গডফাদার হিসাবে সবচেয়ে বেশী পরিচিত নোয়াখাইল্লা সুমন। তার মাদক ব্যবসায় অন্তত ৩০জন লোক কাজ করছে। চাঞ্চল্যকর সুড়ঙ্গ পথে মাদক আস্থানায় তার যোগসূত্রে রয়েছে। গাড়ি ভর্তি করে ইয়াবা ও গাজা পাচার করেছে লোক দিয়ে। মাদক ব্যবসাকে আড়াল করে নিজেকে কাপড় ব্যবসায়ি হিসাবে পরিচিতি দেয়ার জন্য আখাউড়া সড়ক বাজারে একটি কাপড়ের দোকান চালু করে কিন্তু তার এই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি বছরে একবার খোলা হতো না।
সড়ক বাজারের কিছু ব্যবসায়ী জানায়, প্রায় এক বছর ধরে সুমন তার কাপড়ের দোকান খুলছে না। মাদক ব্যবসায় অধিক মুনাফা থাকায় কাপড়ের ব্যবসায় আগ্রহ নেই তার।

এ ব্যপারে আখাউড়া থানার ওসি তদন্ত মোহাম্মদ আরিফুল আমিন জানান, পুলিশের অভিযান শুরুর পর সে তার পরিবার নিয়ে এলাকা ছেড়ে পালায়। পরে পুলিশ তার অবস্থান শনাক্ত করে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

তিনি আরো বলেছেন, মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে। মাদকের সাথে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech