বিদ্যুৎ বিভাগের অবহেলায় প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রের - মফস্বল - Premier News Syndicate Limited (PNS)

বিদ্যুৎ বিভাগের অবহেলায় প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রের

  

পিএনএস, বেনাপোল প্রতিনিধি : বেনাপোলে বিদ্যুৎ বিভাগ ও মার্কেটের মালিকের খামখেয়ালিপনার কারণে একের পর এক মৃত্যু ঘটনা ঘটছে। এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যুর পরও এবার মৃত্যু হলো এক কলেজ ছাত্রের। তবুও টনক নড়েনি তাদের। আর তাদের বোধদায় হবে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসীর।

যশোরের বেনাপোল পোর্ট থানার বড় আঁচড়া গ্রামের আবিদুর রহমানের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান টুটুল (২০)। নাভারণ ডিগ্রি কলেজের অনার্সের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ১ম বর্ষের ছাত্র। গত ১৫ জুলাই বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলা দেখার জন্য টুটুল ও তার ভাই বেনাপোলের গাতিপাড়া সড়কে বাবুর মার্কেটের ছাদে ডিস-লাইনের সংযোগ ঠিক করছিল। এ সময় ছাদের ওপর দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের মেইন তারে জড়িয়ে টুটুল গুরুতর আহত হন। আহত অবস্থায় তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে যশোর ২৫০ শষ্যা জেনারেল হাসপাতালে ও পরে অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়। তার শরীরের ৬০ ভাগ ঝলসে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার বিকেলের দিকে তার মৃত্যু হয়। শনিবার তার মরদেহ বেনাপোলের বাড়িতে এসে পৌঁছায়। এ সময় স্বজনদের কান্নায় এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে। বিকালে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

নিহতের মা শাহিনুর বেগম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গত বছর এ মার্কেট নির্মাণ করার সময় এক নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এবার মৃত্যু হলো আমার ছেলের। শ্রমিক মৃত্যুর পর যদি বিদ্যুৎ ও মার্কেট কর্তৃপক্ষ বিদ্যুতের তারে কাভার লাগাতেন তাহলে হয়তো এ দুর্ঘটনা ঘটতো না।

এদিকে নিহতের পরিবারের সেবায় তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে ঢাকাস্থ বেনাপোল সমিতি। খবর পেয়ে সমিতির সদস্যরা টুটুলকে দেখতে ঢাকা মেডিকেলের বার্ণ ইউনিট যায় এবং তার চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন। তার মায়ের হাতে আর্থিক সাহায্যও তুলে দেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সকল কার্যক্রম শেষে অ্যাম্বুলেন্সও ভাড়া করে দেন তার মরদেহ বেনাপোলে আনার জন্য। তাদের কার্যক্রমে খুশি নিহতের পরিবারসহ বেনাপোলবাসী।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech