আগামী বছর বিদ্যুৎ পাচ্ছে শতভাগ বাকেরগঞ্জবাসী

  

পিএনএস, নিজস্ব প্রতিবেদক: ২০১৯ সালের ডিসেম্বরের মধ্যেই শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আসছে পুরো বাকেরগঞ্জ উপজেলা ছাড়াও নলছিটি ও বেতাগী উপজেলার অশিংক এলাকার অধিবাসীরা। আর এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর অধীন বরিশালের বাকেরগঞ্জ জোনাল অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

ইতি মধ্যে প্রায় ৬ কোটি টাকা ব্যায়ে র্কীতনখোলা নদীর দু’পাড়ে নির্মিত হচ্ছে বৈদ্যুতিক টাওয়ার। যার সঞ্চালন লাইন দিয়ে পরিবাহিত হবে ২৮ মেগাওয়াট বিদ্যুত। পাশাপাশি উপজেলা জুড়ে বৈদ্যুতিক সংঞ্চালন লাইন স্থাপনের কাজ চলছে পুরোদমে। সংশ্লিস্ট কর্মকর্তারা আশা প্রকাশ করছেন কাজের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত সময় সূচির আগেই পুরো বাকেরগঞ্জের মানুষ বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হবে।

সূত্র অনুযায়ী,২০০৬ সালের ১২ আগস্ট বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুত সমিতি-১ এর অধীন বাকেরগঞ্জ জোনাল অফিসের কার্যক্রম শুরু হয়। এই অফিসের আওতাধীন ৪০১.৪৮ কিলোমিটার সঞ্চালন লাইন নিয়ন্ত্রন করতে বাকেরগঞ্জ উপজেলা ছাড়াও কাজ করতে হয় নলছিটি ও বেতাগীর উপজেলার আংশিক এলাকায়। একটি পৌরসভা ও ১৩ টি ইউনিয়নের অন্তভুক্ত ১৭৪ টি গ্রাম রয়েছে জোনাল অফিসের আওতাভুক্ত। যার মধ্যে ইতি মধ্যেই ১৫৯ টি গ্রাম বিদ্যুতের আওতায় এসেছে। সমগ্র উপজেলা জুড়ে রয়েছে ১ হাজার ৩ শ’ ৪০ কিলোমিটার বৈদ্যুতিক লাইন যার মধ্যে ১২৭৬ কিলোমিটার লাইন ইতি মধ্যে বিদ্যুতায়িত হয়েছে।

এর মধ্যে বিউবো হইতে অধিগ্রহনকৃত লাইনের পরিমান ৭৭ কিলো মিটার। ১ হাজার ৭ শত ৭১ টি ট্রান্সফরমার বসানো রয়েছে এই লাইনে। সংযোগকৃত গ্রাহক সংখ্যা মোট ৪৯,৩০৬ টি যার মধ্যে আবাসিক ৪৩ হাজার ৯ শ’ ৩৮ টি ,বাণিজ্যিক ৪ হাজার ১১৭ টি, সেচ ১ টি,সি আই ৯৫১ টি, শিল্প (জি পি) ২৬৭ টি, রাস্তার বাতি ১৩ টি, সোলার ১৮ টি ও এইচটি সংযোগ রয়েছে ১ টি। মোট গ্রাহক সংখ্যা হচ্ছে ৪৬ হাজার ৩ শ’ ৮৫ জন যাদের অভিযোগ জানানোর জন্য পেয়ারপুর,সেনের হাট,মহেশপুর ও কলসকাঠীতে রয়েছে ৪ টি অভিযোগ কেন্দ্র। বর্তমানে পেয়ারপুর ও পাদ্রীশিবপুরে অবস্থিত ২ টি সাবষ্টেশন ছাড়াও খুব শিঘ্রই চালু হচ্ছে ১০ এমবি ধারন ক্ষমতা সম্পন্ন একটি নতুন সাবষ্টেশন। যার মাধ্যম দিয়ে মোট ২০ এমবি বিদ্যুত সঞ্চালন করা সম্ভব হবে। তবে এই বিপুল এলাকা নিয়ন্ত্রনের জন্য জোনাল অফিসের রয়েছে জনবল ও প্রয়োজনীয় সংখ্যক পরিবহনের সংকট। মাত্র ৭৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী একটি পিকআপ ও ১২ টি মটর সাইকেল নিয়ে রাত দিন পরিশ্রম করে পুরো এলাকা নিয়ন্ত্রন করছেন।

এ ব্যাপারে বাকেরগঞ্জ জোনাল অফিসের ডিজি এম সঞ্চয় রয় বলেন,আমাদের অধীন গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সেবা প্রদানের উদ্দেশে জনবল সংকট নিয়েও রাত দিন সেবা দিয়ে যাচ্ছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত ঘরে ঘরে বিনা মূল্যে বিদ্যুত পৌছে দেওয়ার লক্ষে আমি আমার আওতাধীন এলাকায় কাজ করে যাচ্ছি। ইতি মধ্যে জাইকার অর্থায়নে ৬ কোটি টাকা ব্যায়ে র্কীতনখোলা নদীর দু’পাড়ে চলছে টাওয়ার নির্মানের কাজ। যার মধ্য দিয়ে পরিবাহিত হবে ২৮ মেগাওয়াট বিদ্যুত। তবে স্থান সংকটের কারনে আমাদের অফিসিয়াল কার্যক্রম চালাতে খুব বেগ পেতে হচ্ছে। তারপরও আমরা আশা করি,চলমান উন্নয়ন প্রকল্পের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে আগামী বছর বাকেরগঞ্জের প্রতিটি ঘরে আমরা বিদ্যুত পৌছে দিতে পারবো।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech